১০ বছরে ১৫০ বার ধর্ষণ করেছেন এই নামি ক্রিকেটার!

Feature Image

ক্রিকেটারের গায়ে লাগল ‘সিরিয়াল রেপিস্টের’ তকমা। জেলে যাচ্ছেন সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার ডিয়োন তালজার্ড। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তিনি দীর্ঘ ১০ বছর ধরে এক নারীকে ১৫০ বারেরও বেশি ধর্ষণ করেছেন।

সম্প্রতি সেই অভিযোগে তিনি দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। তারপরেই আদালতের রায়ে জেলই তার একমাত্র ঠিকানা হতে চলেছে আগামী ১৮ বছরের জন্য।

১৯৯৩ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত বোর্ডারের হয়ে খেলা এই ক্রিকেটারে বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি দশ বছর এক নারীকে ব্ল্যাকমেইল করে দেড়শ’ বারের বেশি ধর্ষণ করেছেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত ও আইনি লড়াইয়ের পর আদালত তাকে কারাদণ্ড দেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা ছেড়ে ব্রিটেনে পাড়ি জমানোর পর সেখানকার এক নারীর উপর তিনি এই নির্যাতন চালান বলে অভিযোগ উঠে।

ধর্ষণের শিকার নারীর অভিযোগ গত ২০০২ সাল থেকে ২০১২ পর্যন্ত দীর্ঘ দশ বছর ধরে তিনি অত্যাচারিত হয়েছেন। শুধুমাত্র যৌনক্রিয়াই নন, এসময় তার উপর শারীরিক নির্যাতনও চালাতেন তালিজার্ড।

নির্যাতনের মুখে ২০১৫ সালে ওই মহিলা পুলিশকে অভিযোগ করেন। পরে চলতি সপ্তাহে ম্যাঞ্চেস্টারের মিনসুল স্ট্রিট ক্রাউন কোর্টে তালিজার্ড দোষী সাব্যস্ত হন।

এদিকে নিজেকে নির্দোষ দাবি করা তালিজার্ড আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

ব্রিটেনে পাড়ি দেয়ার পর তালিজার্ড ওল্ডহ্যাম, বোল্টন এবং বুরি-র হয়ে ক্লাব ক্রিকেট খেলতেন। তালিজার্ডের ক্যারিয়ারের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ কৃতিত্ব হল, একটি প্রদর্শনী ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হাফডজন উইকেট দখল করা। মোহাম্মদ ইউসুফ, আজাহার মেহমুদ এবং সাঈদ আনোয়ারকে আউট করে তিনি হ্যাটট্রিক করেছিলেন।

তবে ক্রিকেটের ঔজ্জ্বল্য পুরোটাই নিষ্প্রভ হয়ে যায় তাঁর কুকীর্তি সামনে আসার পর। তবে আদালতের এই রায় মানছেন না তালিজার্ড। নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে উচ্চতর আদালতে আবেদন করবেন তিন সন্তানের পিতা ৪৭ বছরের এই ক্রিকেটার, সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন তাঁর বর্তমান গার্লফ্রেন্ড জ্যাকেলিন কোস্তেলোকে। কোস্তেলো ইতিমধ্যেই অনলাইন আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদন জানিয়েছেন, যাতে তাঁরা উচ্চতর আদালতে আবেদন করতে পারেন।

আরো খবর »