ফরিদপুরে দেবরের হাতে ভাবী খুনের ৫৬ দিনেও আসামী ধরাছোয়ার বাইরে

Feature Image

ফরিদপুর থেকে হারুন-অর-রশীদঃ  ফরিদপুরের নগরকান্দায় দেবরের হাতে ভাবী খুনের মামলায় ৫৬ দিনেও কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। মামলার বাদীকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিচ্ছে আসামীরা। হতাশায় বাদীর পরিবার।

উল্লেখ্য যে, জমিজমা নিয়ে উপজেলার চরযোশ্বরদী ইউনিয়নের বাস্তপুটি গ্রামের মৃত আব্দুল মালেক শেখের ছেলে দেলোয়ার হোসেন ওরফে বাবলু ও কবির শেখের বিরোধ চলছিলো। এরই সুত্র ধরে গত ২৫ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ৮ টার দিকে কবির শেখের সাথে তার ভাবী বাহারুন বেগমের কথা কাটাকাটি হয়। এরমধ্যে কবির শেখ উত্তেজিত হয়ে ভাবী বাহারুন বেগমের উপর হামলা চালায়। দেবরের লোহার রডের আঘাতে ভাবী গুরুত্বর আহত হয়।

 

আহতবস্থায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি দেখে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় রিফার করেন। আশংকাজনক অবস্থায় বাহারুন বেগমকে ঢাকা নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৮ জুলাই শুক্রবার সকালে বাহারুন মারা যায়। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে সবুজ শেখ বাদী হয়ে নগরকান্দা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং-২১, তাং-২৭/০৭/১৭ ইং। মামলার পর থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত একজন আসামীকেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

মামলার বাদী সবুজ শেখ এ প্রতিনিধিকে বলেন, কবির শেখ, তপু শেখ, রথিন শেখ ও নুরজাহান বেগম গংরা আমার মাকে হত্যা করেছে। আজ প্রায় দুই মাস পার হয়ে গেলো কিন্তু একজন আসামীকেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশের ঢিলেমির কারণে আসামীরা আমার পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমরা এখন হতাশার মধ্যে আছি।
মামলার উপ-পরিদর্শক ও নগরকান্দা থানার এসআই মো. বদিউজ্জামান বলেন, সকল আসামী পলাতক রয়েছে। আসামীদের ধরার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

আরো খবর »