মানিকগঞ্জে পাষন্ড স্বামী স্ত্রীকে খুন করে ভাসিয়ে দিল নদীতে

Feature Image

মানিকগঞ্জ থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  মানিকগঞ্জ ঘিওর উপজেলার তেরশ্রী এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাষন্ড স্বামী সঞ্জিত কুমার ঘোষ (২৮) তার স্ত্রী কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। ঘটনার সাথে জরিত থাকার অভিযোগে ৫ জনকে ঘিওর থানা পুলিশ বুধবার সকালে গ্রেফতার করেছে।

উপ-পরিদর্শক (এস আই) মোঃ হযরত আলী ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, ৮ বছর পূর্বে টাঙ্গাইলের, মির্জাপুর উপজেলার চানদলিয়া গ্রামের কালীপদ ঘোষের মেয়ে কল্পনা রানীর (২৪) সাথে ঘিওর উপজেলার তেরশ্রী গ্রামের মৃতÑ নারায়ণ চন্দ্র ঘোষের ছেলে সঞ্জিত কুমার ঘোষের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহ লেগেই ছিল। তাদের ৬ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। গত ২৪/০৯/১৭ ইং রোববার বিকেলে দূর্গা পূজা উপলক্ষে পরিবারের জন্য নতুন জামা কাপড় কিনে বাড়িতে আসে।

 

জামা কাপড় স্ত্রীর পছন্দ না হওয়ায় উভয়ের মাঝে ঝগড়া হয়। স্বামী সঞ্জিত কুমার ঘোষ রাতে টিভি দেখতে থাকলে স্ত্রী তা বন্ধ করে দেয়। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে গভীর রাতে তাকে গলা টিপে হত্যা করে তার লাশ সি এন জিতে ঘিওর পশু হাসপাতাল সংলগ্ন বেইলি ব্রিজ থেকে ধলেশ্বরী নদীতে ফেলে দেয়। সোমবার ২৫/০৯/১৭ ইং তারিখ প্রতারক স্বামী তার স্ত্রী নিখোজ হয়েছে এই মর্মে ঘিওর থানায় একটি জিডি করে। জিডির তদন্তের একপর্যায়ে হত্যার ঘটনাটি ফাস হয়ে যায়।

 

জিডি করার পর থেকে সে মোবাইল ফোনটি বন্ধ করে গা ঢাকা দেয়। তাকে নাগরপুর থানার এলাসিন গ্রামে খালার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এই রির্পোট লেখা পর্যন্ত পুলিশ লাশ উদ্ধার করতে পারেনি।

ঘিওর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রবিউল ইসলাম জানান, প্রতারক স্বামী সঞ্জিত কুমার ঘোষ, ও তার মা কে নাগরপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তেরশ্রী থেকে তার বন্ধু নির্মল সাহা (৪০), চিত্য ঘোষ (৩৫), বদ্দো সাহা (৪০) আটক করা হয়। হত্যা মামলাটির রহস্য উদঘাটনের জন্য জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত আছে। লাশ উদ্ধারের জোর তৎপরতা চলছে।

আরো খবর »