ত্রাণ বিতরণে সেনাবাহিনী যোগ দেয়ায় শৃঙ্খলা ফিরেছে

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

কক্সবাজার: জেলা প্রশাসনের সঙ্গে সেনাবাহিনী যোগ দেয়ায় শৃঙ্খলা ফিরেছে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ বিতরণে। কড়া নজরদারির পাশাপাশি সুশৃঙ্খলভাবে ১২টি কেন্দ্র থেকে চলছে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম। শৃঙ্খলা ফিরে আসায় স্বস্তিতে রোহিঙ্গা শরণার্থী ও স্থানীয়রা।

গত সপ্তাহেও কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের প্রায় ৪০ কিলোমিটার এলাকায় চোখে পড়তো নারী ও শিশুসহ মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা হাজার হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীর বিশৃঙ্খল বিচরণ। ত্রাণবাহী কোন গাড়ি দেখলেই মূল সড়কে ছুটে আসতো তারা আর হুড়োহুড়ি করে ত্রাণ বিতরণ বা সংগ্রহ করতে গিয়ে ঘটতো নানা দুর্ঘটনা। সেই সঙ্গে ছিলো যানজটের ভোগান্তি।

তবে গত শনিবার থেকে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমসহ রোহিঙ্গাদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় জেলা প্রশাসনের সাথে সেনাবাহিনী যোগ দেয়ায় অল্প সময়ের মধ্যেই শৃঙ্খলা ফিরে এসেছে শরণার্থী শিবিরে। এতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশৃঙ্খলা বন্ধ হবার পাশাপাশি সড়ক যোগাযোগের দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাওয়ায় স্বস্তি ফিরে এসেছে রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের মধ্যে।

জেলা প্রশাসনের জনবল বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বিপুল সংখ্যক সেনা সদস্য কাজ শুরু করায় সার্বিক কার্যক্রমে শৃঙ্খলা ফিরে এসেছে বলে জানালেন উখিয়ার উপজেলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাঈন উদ্দিন।

ত্রাণ বিতরণসহ শরণার্থী শিবিরে যে কোন বিশৃঙ্খলা এড়াতে প্রশাসনের পাশাপাশি সেনা সদস্যদের সাহায্য নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন জেনারেল অফিসার কমান্ডিং মেজর জেনারেল মাকসুদুর রহমান।

নির্যাতনের মুখে পালিয়ে এসে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে আশ্রয় নেয়া সাড়ে ৪ লাখ ৮০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গাদের সার্বিক তত্বাবধানে রয়েছে সেনাবাহিনীর চারটি ব্রিগ্রেড।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »