ক্ষোভ প্রকাশ করে সু চিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

Feature Image

রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নিপীড়নে হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে কড়া ভাষায় চিঠি দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।
এর আগে রোহিঙ্গা সংকটের শুরুতেই সু চিকে ফোন করেও গভীর উদ্বেগের কথা জানিয়েছিলেন কানাডার উদারপন্থী প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো।
এরপর ১৮ সেপ্টেম্বর তিনি সু চিকে একটি চিঠি লেখেন। আর সেই চিঠি এখন প্রকাশ্যে এসেছে।

সু চিকে কানাডা সরকার সম্মানসূচক নাগরিকত্ব দিয়েছে। সেই বিষয়ের দিকে ইঙ্গিত করে ট্রুডো লিখেছেন, ‘আমি গভীর হতাশা, বিস্ময় ও ক্ষোভের সঙ্গে আপনাকে জানাতে চাই যে, কানাডার অন্য নাগরিকরা লক্ষ করছেন মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর বর্বর নিপীড়ন চলছে অথচ আপনি মুখ বুজে রয়েছেন। ’

তিনি লিখেছেন, ‘তারা যে পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন এবং মিয়ানমারের সব সংখ্যালঘু নৃগোষ্ঠীর সুরক্ষা নিয়ে আমি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। ’

ট্রুডো ২০১২ সালে সু চির নোবেল বক্তৃতার কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভের দুই দশক পর সু চি যখন সেই পুরস্কার গ্রহণ করেন, তখন তিনি ভাষণে বলেছিলেন, ‘নোবেল কমিটি যখন আমাকে শান্তি পুরস্কারে ভূষিত করেছে তখন তারা এটাও স্বীকার করে নিয়েছে যে বার্মার নিপীড়িত ও বিচ্ছিন্ন জনগণও এই বিশ্বেরই অংশ। ’

সু চি সেই ভাষণে আরো বলেছিলেন, বাকস্বাধীনতা ও ভীতিমুক্ত সমাজ পাওয়া মানুষের অধিকার। সু চির এসব কথা উল্লেখ করে চিঠিতে ট্রুডো লিখেছেন, ‘আপনার এসব নৈতিক বাক্যগুলো রাখাইনের চলমান পরিস্থিতিকে উপহাস করছে। ’

আরো খবর »