ডিভোর্স হয়ে গেল হ্যাপির!

Feature Image

নাজনীন আক্তার হ্যাপি। এক সময়ের সমালোচিত মডেল অভিনেত্রী তিনি। ক্রিকেটার রুবেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে আলোচনায় এসেছিলেন এই মডেল। এরপর তা বহু ডালপালা ছড়ায়। এরপর তিনি হঠাৎ মিডিয়া জগৎ ছেড়ে ধর্মের পথে চলে আসেন। এমন কি নিজের নাম পরিবর্তন করে ‘আমাতুল্লাহ’ নাম রাখেন।

তবে নতুন করে সেই হ্যাপি আবার আলোচনায় এসেছেন। বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১১ বেজে ২৩ মিনিটে নিজ ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাসে মাধ্যমে জানিয়েছেন তার ডিভোর্স হয়ে গেছে।

হ্যাপি তার স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘আমার ডিভোর্স হয়েছে গত মাসে। আমি প্রচন্ড শক খেয়েছিলাম তখন। যার ফলে আমি প্রায় দুই মাসের মত স্মৃতি হারিয়ে ফেলি ।আমার ডিভোর্সের কথাও আমি ভুলে গিয়েছিলাম। আজকে রাতেই মনে করিয়ে দেওয়া হলো। যাইহোক,জানলাম। সবকিছু নতুন করে আবার সাজাবো ইনশাআল্লাহ! আমার জন্য দোয়া করবেন সবাই, আল্লাহ পাক যেন সবর করার তৌফিক দান করেন। তায়াক্কালতু আলাল্লাহ’।

তার ফেসবুকের ফ্যান ফলোয়ার্সরা বিষয়টি বিশ্বাস করতে না চাইলে, হ্যাপি নিজেই এক ভক্তের কমেন্টের নিচে প্রতিউত্তরে লিখেন- ‘যেটা বলেছি, সেটা ভুয়া না’।

দুই লাখ ৬৫ হাজারের বেশি ফলোয়ার থাকার হ্যাপির নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে এমন স্ট্যাটাস দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর ঠিক ৩০ মিনিট পর হ্যাপি তার স্ট্যাটাসটি সরিয়ে ফেলেন।

তবে এই ঘটনার পর আরেকটি স্ট্যাটাস দিয়ে হ্যাপি জানান, তার ফেসবুক আইডিটি হ্যাক হয়েছিল। তবে কে বা কারা হ্যাক করে সে বিষয়ে কিছু জানাননি বিতর্কিত এই মডেল অভিনেত্রী

 

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ অক্টোবর রাজধানীর রূপনগর আবাসিক এলাকায় নিজ বাসায় রাত ৯টার দিকে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় হ্যাপির। জানা যায় তার স্বামী একটি কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক।

আরো খবর »