খালেদার দেশে ফেরা নিয়ে ধোঁয়াশায় নেতাকর্মীরা

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: চিকিৎসার জন্য প্রায় আড়াই মাস যাবত লন্ডনে অবস্থান করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সেখানে অবস্থানকালীন দলীয় কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেননি তিনি। নেতাকর্মী থেকে শুরু করে সব মহলে এখন একটাই প্রশ্ন ‘কবে ফিরবেন খালেদা জিয়া’।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, চিকিৎসার জন্য লন্ডনে অবস্থান করলেও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েই খালেদা জিয়া দেশে ফিরবেন। একমাত্র ছেলে ও দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পরামর্শেই এখনও পূর্ণ বিশ্রামে আছেন তিনি। তবে আগামী মাসেই (অক্টোবর) তার দেশে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারেননি, কবে ফিরবেন খালেদা।

গত ১৫ জুলাই চিকিৎসার জন্য লন্ডন গেলেও রাজনীতিতে বিএনপি চেয়ারপারসনের এই সফর অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সেখানে অবস্থানকালে বেশ কয়েকটি বৈঠকের গুঞ্জন শোনা গেলেও তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলেও নানা আলাপ আলোচনা রয়েছে।

তবে লন্ডন যাওয়ার পর থেকে বেশ কয়েকবার তিনি দেশে ফিরে আসবেন বলে বিমানের টিকিট বুকিং দিয়েও না আসায় দলের নেতাকর্মীদের একাংশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। তিনি কবে নাগাদ দেশে ফিরবেন এ বিষয়ে মধ্যম সারির নেতাকর্মীদের পাশাপাশি দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামের সদস্যরাও কিছু জানেন না।

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরার বিষয়ে জানতে চাইলে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, এ ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না। বিএনপির এই নীতি নির্ধারকের মতো দলের প্রায় সব পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর নিয়ে অন্ধকারে আছেন।

বিএনপির গুলশান কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ অক্টোবর মাসে বাংলাদেশে আসবেন। তার আগেই দেশে ফিরে আসার চিন্তা ভাবনা করছেন তিনি। সফরকালে খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে তাদের মধ্যে একান্ত বৈঠক হতে পারে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »