বাঞ্ছারামপুরে অতিবৃষ্টিতে নদীভাঙ্গনের কবলে সড়ক

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে জাফরিন আক্তার রোজী: ৩ দিন আগেও এখান দিয়া আমি হাইট্রা গেছি।আজ দেহি মাটির জায়গায় পানি।আল্লাহ কি আমরারে রক্ষা করবো না ?এমন আকুতি ও ভীত সন্ত্রস্থ্য হয়ে দীর্ঘশ^াস ছেড়ে কথা বলছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার রুপুসদী ইউনিয়নের হোগলাকান্দি গ্রামের মো.রশিদ মিয়া(৬২)।

সরেজমিনে দেখা গেছে,গত কয়েক  দিনের অতিবৃষ্টিতে পূর্ব থেকে খারাপ সড়কগুলো আরো খারাপ হয়ে গেছে।

রুপুসদী দক্ষিণপাড়ার রুপুসদী হতেহোগলাকান্দি সড়কে রুপুসদী দক্ষিণ কবরস্থান সংলগ্ন অতিবৃষ্টিতে মাটির সড়কটিকে গিলে খাচ্ছে বৃষ্টির পানি।এতে অনেকের কৃষি জমি এবং কিছু বাড়ি ভাঙ্গনের হুমকীর মুখে।

সদর উপজেলার দূর্গারামপুর হতে পৌরসভার রাস্তাটি এতোটাই বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে যে,গাড়ি দূরে থাক,মানুষই হেটে যেতে পারছেন না।

সদর পৌর এলাকার হাইস্কুল রোড হতে শুরু করে সফিরকান্দি,মনাইখালীর রাস্তাগুলো দ্রুত মেরামতের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

পৌর এলাকার বাসিন্দারা হতাশ হয়ে বলেন,-‘আমরা তো বাঞ্ছারামপুরে এমন পৌরসভা চাইনি যেখানে পৌরসভার নূন্যতম নাগরিক সুবিধা থাকবে না !

এদিকে,উপজেলার নাজুক সড়কগুলোর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে রক্ষা পেতে প্রশাসনের পদক্ষেপ চেয়েছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র খলিলুর রহমান টিপু মোল্লা জানান,-‘আগামী মাসে (অক্টোবরের শেষে)বাঞ্ছারামপুর পৌরসভা সীমিত ফান্ড থেকে যথাসম্ভব ভাঙ্গাচুড়া রাস্তাগুলো জরুরী ভিত্তিতে মেরামতের কাজে হাত দিবো’।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপজেলা প্রকৌশলী মো.খোরশেদ আলম বলেন পৌর এলাকার কাজে আমরা তো হস্তক্ষেপ করতে পারি না।তবে,পৌর এলাকার বাইরের কাজগুলো আমরা দ্রুততার ভিত্তিতে মেরামত,সংস্কার করবো।তার আগে বৃষ্টি তো থামতেই হবে’।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »