ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে চতুর্থ সমাবর্তন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

Feature Image

ইবি প্রতিনিধি : দীর্ঘ ১৫ বছর পর অবশেষে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রাণের দাবি সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার ভাইস চ্যান্সেলরের কনফারেন্স রুমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, হল প্রভোস্ট, প্রক্টর. ছাত্র-উপদেষ্টা, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত), অফিস প্রধানসহ সংশ্লিষ্ট স্টেয়ারিং কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ভাইস চ্যান্সেলর ও স্টেয়ারিং কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, এ পর্যন্ত আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনটি সমাবর্তন হয়েছে এটি হবে চতুর্থ সমাবর্তন। যেখানে প্রায় ৩৮০০০ গ্রাজুয়েট তাদের সার্টিফিকেট পাবার অধিকার রাখে। আগামী বছর জানুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহে যেকোন দিন এ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, সমাবর্তনের পাশাপাশি রয়েছে আমাদের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষা। এবছর নতুন খোলা ৮টি বিভাগসহ ৩৩টি বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামী মাসের ২৫ নভেম্বর হতে ২৮ নভেম্বর সম্ভাব্য ভর্তি পরীক্ষার সময় নির্ধারন করা হয়েছে।

তিনি চতুর্থ সমাবর্তনকে সুষ্ঠু, সুন্দর, সার্থক ও সফলভাবে আয়োজন ও সমাপ্তের জন্য দলমত নির্বিশেষে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করবার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

সভায় বিভিন্ন দিক নির্দেশনামুলক বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো- ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা।

উল্লেখ্য, গত মাসের ২০সেপ্টেম্বর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারীর নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চ্যান্সেলর ও বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ সমাবর্তনের অনুমতি ও সময় নির্ধারণ করেন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ১৯৮০ অনুচ্ছেদ ৮(১) অনুযায়ী ‘গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর থাকিবেন এবং উপস্থিত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানসমূহে একাডেমিক ও সম্মানসূচক ডিগ্রী প্রদানের জন্য সভাপতিত্ব করবেন। এবারের সমাবর্তন থেকে মোট ৩৮ হাজার ৪’শ নব্বই জন গ্রাজুয়েট তাদের সনদপত্র গ্রহণ করবেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালের ২৭ এপ্রিল ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপর ১৯৯৯ সালের ৫ ডিসেম্বর ২য় ও ২০০২ সালের ২৮ মার্চ ৩য় সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।

আরো খবর »