বিএনপি অচিরেই ‘লাইফ সাপোর্টে’ চলে যাবে: কাদের

Feature Image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে শেখ হাসিনার সরকারের সাফল্যের সুবাস যেখানে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে গেছে, সেখানে বিএনপি সরকারের ব্যর্থতার সমালোচনা করতে ব্যস্ত। দলটি নেতিবাচক রাজনীতি করতে করতে এতোটাই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে যে আমার তো আশঙ্কা হয় কখন বিএনপিকে লাইফ সাপোর্টে পাঠাতে হয়।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির যৌথ সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার ছুটিতে যাওয়াকে স্বাভাবিক ভাবে নেয়নি বিএনপি। তারা বলছে, জোর করে প্রধান বিচারপতিকে ছুটিতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ।

এ সম্পর্কে আওয়ামী লীগের মন্তব্য জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের অবস্থান আইনমন্ত্রী আগেই জানিয়েছেন। নতুন করে বলার কিছু বলার নেই। এর আগে, দুপুরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের নিজ কার্যালয়ে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, প্রধান বিচারপতি ক্যান্সারসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত। যা তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে ছুটির জন্য লেখা চিঠিতে উল্লেখ করেছেন।

পাল্টা প্রশ্ন রেখে ওবায়দুল কাদের বলেন, এমন একটি দল থেকে এ অভিযোগ করা হয়েছে; যে দলের নেত্রীই দীর্ঘ দিন থেকে বিদেশে রয়েছে। তার কি কারণ রয়েছে? প্রথমে বলেছিলেন দুইমাসে ফিরে আসবেন। দিন পেছাতে পেছাতে এখন তিন মাসেরও বেশি সময় পার হয়ে গেছে। তাহলে, এর কি জবাব দেবে বিএনপি।

রাষ্ট্র সংবিধান অনুযায়ি চলবে জানিয়ে- প্রধান বিচারপতির ছুটি নিয়ে রাজনীতি না করে; বিএনপিকে সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ পড়ে দেখার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। লন্ডনে বসে খালেদা জিয়া এবং তারেক জিয়া ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা লন্ডনে বসে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করছে। আওয়ামী লীগ সরকারকে হটানোর ষড়যন্ত্র করছে। জাতি লন্ডনে তাদের কর্মকাণ্ডের তদন্ত চায়। আমি স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড, এম আই ফাইভ, এম আই সিক্সের মতো ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা গুলোর প্রতি খালেদা জিয়া এবং তারেক জিয়ার কর্মকাণ্ড তদন্ত করে দেখার আহ্বান জানাবো।

আরো খবর »