মুখ ফুটে স্ত্রীকে যে কথা বলতে পারেন না স্বামী

Feature Image

নিউজ ডেস্কঃ আপনার স্বামী আপনাকে হয়ত সব কথাই বলেন, তাও এমন কিছু বিষয় থাকে যা বলার মত ক্ষমতা আপনার স্বামীর নেই৷ অনেক ক্ষেত্রেই আপনি হয়ত ভাবেন কেন আপনার স্বামী সেই কথা বলে না, কিন্তু আপনাকে বুঝতে হবে তিনি মনে মনে সেই কথাটা হয়ত আপনাকে অনেকবার বলেছেন৷ এক কথায় স্বামীর মনের কথা গুলো বুঝে নিতে হবে আপনাকেই৷ তাই জেনে নিন ঠিক কোন কথা মুখ ফুটে বলতে পারেননা আপনারক স্বামী৷ কারণ এগুলি জানা থাকলে মনের মানুষটিকে আরও বেশি করে ভালবাসতে পারবেন আপনি৷

আপনিই তার সব কিছু, আপনাকে ঘিরেই তার স্বপ্ন, আপনি ছাড়া আর কারও কথা ভাবতে পারেননা তিনি৷ এই কথা গুলি মুখে এনেও আনতে পারেননা আপনার স্বামী৷ এই কথা সরাসরি মুখে না বলে অন্য ভাবে তিনি আপনাকে এগুলি বোঝানোর চেষ্টা করেন৷ আপনি হয়ত তার কাছ থেকে একটা মিশ্টি আলিঙ্গন বা আবেগঘন কথা আশা করেন৷ কিন্তু তিনি আপনার প্রিয় খাবার কিনে বা আপনার ঘরের কাজ করে সেই কথা জানান দিতে চান আপনাকে৷

স্বামী বিরুদ্ধে স্ত্রী অভিযোগের শেষ থাকে না৷ বিশেষ করে বাপের লোকেদের সামনে বা নিজের বান্ধবীদের সামনে আপনি স্বামীকে নিয়ে ঠাট্টা করেন৷ এতে সব শুনে মুখে কিছু না বললেও মনে মনে কুঁকড়ে যান আপনার স্বামী৷ কিন্তু এভাবে বেশিদিন চলতে থাকলে আপনি যে আপনার স্বামীকে গুরুত্ব দেন সেটা একসময় ভুলতে শুরু করতে পারেন আপনার স্বামী৷ তাই স্বামীর প্রতি কোনও অভিযোগ থাকলে সেটা সরাসরি তাকেই বলুন৷ অযথা অন্যের সামনে স্বামীর বদনাম করে তাকে ছোট করবেন না৷

নিজের সন্তানদের প্রতি আপনার দায়িত্বশীলতা দেখে খুশি হলেও মনে মনে নিজেকে অনেক সময় একা ভাবেন একজন স্বামী৷ শিশুদের জীবনে মায়ের ভূমিকা জানা সত্ত্বেও আপনাকে যেন কিছুতেই অন্য কারোর সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাননা তিনি৷ তিনি চান হাজার কাজের মাঝেও আপনি তাকে সময় দেবেন, তাকে প্রতিমুহুর্তের কথা জানাবেন৷ তিনি চান শুধু আপনাকে নিয়ে কোথা থেকে ঘুরে আসতে৷ এতে সন্তানদের একটু সমস্যা হলেও আপনাদের এই বন্ধন দেখে তারাো সম্পর্ককে মূল্য দিতে শিখবে৷

আপনার স্বামীর হঠাৎ করে যদি চাকরি চলে যায় বা সংসারে অর্থাভাব দেখা দেয় তবে নিজেদের সম্পর্কও প্রভাবিত হয়৷ আপনার স্বামীটি কিন্তু মনে মনে চান যাতে আপনি বুঝতে পারেন যে এই অবস্থায় তার নিজের ব্যর্থ ও অসহায় বলে মনে হচ্ছে৷ আপনি আর্থিক অবস্থায় নিয়ে চিন্তিত হলে তিনি আরও বেশি দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হয়ে পড়েন৷ কারম তার মনে হয় তিনি আপনাকে ছোট করছেন৷ তার কাছে আপনাকে ভাল রাখায় চাইতে তৃপ্তিদায়ক আর কিছুই নেই৷ তাই এই বিষয়ে অযথা চিন্তা করে নিজের শরীর খারাপ না করে স্বামীর সঙ্গে ঠান্ডা মাথায় আলোচনা করুন৷ আপনার স্বামীকে বোঝান যে যতই সমস্যা আসুক আপনি সবসময় তার সঙ্গেই থাকবেন৷

আপনার স্বামী যা যা করেন সবক্ষেত্রেই তিনি আপনার প্রশংসা চান৷ এমনকি আপনার জন্য কিছু করলেও আপনি সেই কাজের প্রশংসা করবেন সেটাই আশা করেন তিনি৷ তাই তিনি যেমন তাকে সেভাবেই আপনি ভালবাসেন সেটা তাকে বুঝিয়ে দিন৷ কারণ একটানা যদি স্বামীর ভুল নিয়েই অভিযোগ করতে থাকেন তবে তিনি বুঝেই উঠতে পারেননা যে আপনি আদৌ তাকে মূল্য দেন কিনা৷ তাই ঘুমোতে যাওয়ার আগে হালকা কথায় মাঝে তাকে বলুন তার কোন কোন কাজ আপনার ভাল লাগে৷ একসময় হয়ত তিনিও আপনার প্রশংসা শুরু করবেন৷

আরো খবর »