ভিসা পেলেও অর্থাভাবে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারত যেতে পারছে না

Feature Image

মানুষ মানুষের জন্য, মানুষ কি পেতে পারে না একটু সহানুভূতি। হ্যাঁ অসংখ্য ভালোবাসার মানুষের সহানুভূতি, সহযোগীতা আর আল্লাহ তায়ালার অশেষ কৃপায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সাংবাদিক এম এ ওহাব প্রাণে বেঁচে থাকলেও একটি পা অকেজো হয়ে বিছানায় পড়ে ধুকে ধুকে সময় কাটাচ্ছে!
হৃদয়ের টানে স্বতীর্থ সহকর্মী ওহাবের শয্যাপাশে গেলে দেখা যায় এমন করুন অবস্থার। ওহাবের বাড়িতে গেলে দেখা যায় পরিবারে মা, স্ত্রী, পুত্র নিয়ে অনাহারে, অর্ধাহারে দুর্বিসহ দিন যাপন করছে।

চক্ষু লজ্জা বা আত্মসম্মান বোধে কাওকে বলেতেও পারছে না। দীর্ঘ সময় সুখ-দুঃখের  আলাপচারিতায় ওহাব দীর্ঘশ্বাস ফেলে আর বলে ভাই সেই সোনালী দিনের কথা মনে পড়ে, আগের জীবনে ফিরে যেতে ইচ্ছে করে, সবার মাঝে মিশতে ইচ্ছে হয়! ওহাবের কথায় বাকরুদ্ধ হয়ে আসে, বাতাস ভারী হয়ে যায়। শান্তনা দেওয়ার কোন ভাষা থাকে না।

এদিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভারত যাওয়া অতীব প্রয়োজন। কিন্তু অর্থাভাবে তা হয়ে উঠছে না। ইতিমধ্যে ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, ঢাকা ট্রমা সেন্টার, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেল বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসা গ্রহণ করেছে। উল্লেখ্য কুমারখালীর পুরুষ্কার প্রাপ্ত,গরীবের সমাজে বহুল সুপরিচিত সাংবাদিক এম এ ওহাব গত ১৮ নভেম্বর ২০১৬ খ্রিঃ এক সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হয়।

এ পর্যন্ত যারা আর্থিক সাহায্য করেছেন ওহাব তাদের প্রতি আনন্দচিত্তে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলে আরেকবার সকলের সাহায্য পেলে সম্পূর্ণ সুস্থ্য হতে পারতাম! সবার কাছে ওহাব আর একবার সাহায্য চেয়ে বলেন সবার কাছে আমার আকুল আবেদন আপনারা আমাকে আর একটি বার যে যা পারেন পরিমানে কম হলেও সবাই মিলে আর্থিক সায্য করেন। কারন দশের লাঠি একের বোঝা। ওহাবের উন্নত চিকিৎসার জন্য সাহায্য পাঠাতে তার ব্যক্তিগত ০১৮৪২ ০৬২ ১৩২ নাম্বারে বিকাশ করুন।

আরো খবর »