শান্তি’র নোবেল ঘোষিত হচ্ছে আজ, কে কে আছেন তালিকায়…

Feature Image

বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পদক নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা শুরু হয়েছে। সারা বিশ্বের কৌতুহলী মানুষদের মুখে মুখে এ নিয়ে বিভিন্ন ধরণের আলোচনা। কে কোন বিষয়ে নোবেল পাচ্ছেন তা নিয়ে নানা গুঞ্জনেরও ডালাপালা মেলছে সারাবিশ্বেই। ইতোমধ্যেই বেশকিছু বিষয়ে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষিত হয়েছে। তবে সবার আগ্রহের কেন্দ্রে রয়েছে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার কে পাচ্ছেন..।

প্রতিবছর চিকিৎসা, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, সাহিত্য, শান্তি, ও অর্থনীতিতে নোবেল দেয়া হয়। ইতিমধ্যেই চিকিৎসা, পদার্থ এবং রসায়নে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এবার সবার চোখ ২০১৭ সালের শান্তির নোবেলের দিকে। সুইডেনের স্টকহোমে নোবেল কমিটি আগামী শুক্রবার চলতি বছরে শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করবে।

বিবিসি, রয়টার্স ও গার্ডিয়ানসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, ৩১৮টি ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান এ বছরের শান্তিতে নোবেল পদকের তালিকায় রয়েছে। তবে গত ৫০ বছর ধরে নোবেল পুরস্কারের সম্ভাব্য বিজয়ীদের নাম প্রকাশ করা হয় না। এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়।

যাদের নাম রয়েছে বলে গুঞ্জণ: এ পর্যন্ত শান্তিতে নোবেলের মনোনয়ন তালিকায় যাদের নাম রয়েছে বলে গুঞ্জণ রয়েছে তারা হলেন, লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল, জুলিয়ান অ্যাসেঞ্জ, লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, জো কক্স, বুলগেরিয়ার অর্থোডক্স চার্চ, ডেভিড বোয়ি, রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ, ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতির প্রধান ফেডেরিকা মোঘিরিনি, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হোয়াইট হেলমেট এবং সংস্থাটির প্রধান রায়েদ আল সালেহ, তুরস্ক ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম কুমহুরিয়েত পত্রিকা এবং পত্রিকাটির সম্পাদক কান দুনদার, জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা, জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, পোপ ফ্রান্সিস, আমেরিকান সিভিল লিবারটিস ইউনিয়ন এবং রাইফ বাদাওয়ি।

এ বছর যারা নোবেল পেলেন: মানবদেহের জৈবিক ঘড়ি কিভাবে কাজ করে তা নিয়ে গবেষণার স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন মার্কিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন- জেফ্রি হল, মাইকেল রোজব্যাশ ও মাইকেল ইয়ং। মহাকর্ষীয় তরঙ্গ নিয়ে গবেষণার জন্য এবার পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন মার্কিন পদার্থবিদ। তারা হলেন রেইনার ওয়েস, ব্যারি সি ব্যারিশ ও কিপ এস থ্রোন। ক্রাইয়ো-ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপির বিকাশের জন্য এবার রসায়নে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন সুইজারল্যান্ডের জাক দুবোচে, জার্মান বংশোদ্ভূত ইওয়াখিম ফ্রাংক ও স্কটিশ বংশোদ্ভূত রিচার্ড হেন্ডারসন। এদিকে চলতি বছর সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন ‘অব্যক্ত আবেগের রূপকার’ জাপানি বংশোদ্ভূত যুক্তরাজ্যের সাহিত্যিক কাজুও ইশিগুরো।

উল্লেখ্য, ১৯০১ খ্রিস্টাব্দে নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তন শুরু হয়। মোট ছয়টি বিষয়ে দেয়া হয় এ পুরস্কার। বিষয়গুলো হল- পদার্থ, রসায়ন, চিকিৎসা, অর্থনীতি, সাহিত্য এবং শান্তি। পুরস্কারপ্রাপ্তদের প্রত্যেকে একটি স্বর্ণপদক, একটি সনদ ও নোবেল ফাউন্ডেশন কর্তৃক কিছু পরিমাণ অর্থ পেয়ে থাকেন। ২০১২ সালে এই অর্থের পরিমাণ ছিল ৮০ লক্ষ সুইডিশ ক্রোনা। বিশেষ কোনো কারণ ছাড়া নোবেল পুরস্কার মৃত কাউকে দেয়া হয় না।

সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেলের ১৮৯৫ সালে করে যাওয়া উইলের মাধ্যমে এই পুরস্কার দেয়া হয়। অর্থনীতি ছাড়া অন্য বিষয়গুলোতে ১৯০১ সাল থেকে পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। অর্থনীতিতে পুরস্কার প্রদান শুরু হয় ১৯৬৯ সাল থেকে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের জন্য ১৯৪০ থেকে ১৯৪২ সাল পর্যন্ত পুরস্কার প্রদান বন্ধ ছিল।

আরো খবর »