এ কেমন বিরল রোগে আক্রান্ত শিশুটি!

Feature Image

বিরল রোগে আক্রান্ত কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার আটগড়া গ্রামের ৫ বছরের শিশু সিয়াম। শরীরের অস্বাভাবিকতার কারণে স্থানীয়রা এড়িয়ে চলছে ছেলেটিকে। এমনকি ভয়ে তার ধারে কাছেও যায় না অন্য শিশুরা।

শিশুটির মা নুরুনাহার বেগম বলেন, অন্য শিশুরা আমার ছেলেকে ঘৃণা করে। মানুষজন তার এই রোগের কারণে তাকে নোংরা মনে করেন। সে কোথায় যেতে পারে না। সবসময় তাকে নিয়ে বাড়িতে থাকতে হয়। সে বাহিরে বের হয় না। কারণ, গ্রামবাসীরা সিয়ামকে দেখে ভয় পায়। এবং তাকে উদ্দেশ্য করে আজেবাজে কথা বলে। সন্তানকে এভাবে কষ্ট পেতে দেখা অত্যন্ত কষ্টকর।

সিয়ামের বাবা জহির জানান, সিয়ামের জন্মের ৮০ দিনের মাথায় বিরল এ রোগের প্রথম লক্ষণ দেখা দেয়। আমার ২ ছেলে ১ মেয়ে। এর আগেই আমার এক সন্তান সায়মন এই রোগেই মারা গেছে। এখন আবার সিয়াম সেই রোগে আক্রান্ত। সে ঠিকমত হাটতেও পারে না। আমার কাছে আর এক পয়সাও নেই। গাড়ির সুপারভাইজার করে অল্প সল্প যা কিছু আয় হতো তা দিয়ে ছেলের চিকিৎসায় ব্যয় করেছি। এ পর্যন্ত ২ লাখ টাকা শেষ। টাকার অভাবে বেশ কিছু দিন ধরে তাকে কোনো ডাক্তারও দেখাতে পারিনি।

সন্তানের কষ্টের বর্ণনা দিয়ে সিয়ামের মা বলেন, আমার ছেলেকে সাহায্য করার জন্য আমি সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানাই। তাকে কষ্ট পেতে দেখলে কষ্টে আমার বুকটা ফেটে যায়। সে কাঁদে আর জিজ্ঞেস করে কেন তার এমন কষ্ট হচ্ছে। আমি তাকে সব সময় বলি আল্লাহ তাকে অন্যরকম করে সৃষ্টি করেছেন আর তাঁর ইচ্ছায় সে ভাল হয়ে এক সময় পড়াশোনা করতে পারবে; স্বাভাবিক ও সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারবে।

আরো খবর »