কড়া নিরাপত্তায় গণসংবর্ধনার আয়োজন

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গণসংবর্ধনা দেওয়ার জন্য রাস্তায় বিপুলসংখ্যক নেতা–কর্মীর উপস্থিতি দেখা গেছে। নেতা–কর্মীরা সকাল ৮টা থেকে রাস্তার পাশে জড়ো হতে শুরু করেন। নেত্রীকে বরণ করে নিতে বিমানবন্দর থেকে গণভবন পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে হাজার হাজার নেতা-কর্মী ভিড় জমান।

কোনো ধরনের জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না করে এই সংবর্ধনা দেওয়া হবে বলে আগেই আশ্বস্ত করেছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের—তবে আজ এই সংবর্ধনা উপলক্ষে বিভিন্ন সড়কে ডাইভারশন থাকার কারণে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আসা উপলক্ষে উত্তরা থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত রাস্তা পুরোপুরি বন্ধ। এই রাস্তায় গাড়ি একদমই নড়তে পারছে না, আটকে আছে। এ ছাড়া বাংলামোটর থেকে বিজয় সরণি পর্যন্ত তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যে ফার্মগেটে ডাইভারশন দেওয়া হয়েছে। কোনো গাড়ি সরাসরি ফার্মগেট থেকে বিজয় সরণিতে ঢুকতে পারছে না।

এদিকে বিপুল সমারোহে ঢোল হারমোনিয়াম বাজিয়ে রাস্তার পাশে গান গেয়ে উৎসবে মেতেছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। বিজয় সরণি থেকে মহাখালী পর্যন্ত কোথাও কোথাও রাস্তার দুধারে, কোথাও রাস্তার একপাশে নেতা কর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে। মহাখালী ওভারব্রিজের পর রাস্তার একপাশে বিপুল পরিমাণ নেতা-কর্মীর উপস্থিতি দেখা গেছে। এখানে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লিগ, যুব মহিলা লীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা গেছে। ট্রাকে করেই নেতা-কর্মীদের সংবর্ধনার জায়গায় আসতে দেখা গেছে।

প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরা উপলক্ষে সড়কে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করেছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। প্রধানমন্ত্রী বিমানবন্দর ভিভিআইপি টার্মিনাল হয়ে বের হওয়ার পথে নেতা–কর্মীরা যেখানে দাঁড়িয়েছেন, তার সামনে পুলিশ ও র‍্যাব সদস্যদের দুইটি মানব ঢাল তৈরি করা হয়েছে। এরপর নেতা কর্মীরা দাঁড়িয়েছেন। রাস্তার বিভিন্ন ফুটওভার ব্রিজ, ফ্লাইওভার—এসব জায়গায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সতর্ক অবস্থান রয়েছে। সাদা পোশাকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও তৎপর রয়েছেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »