আখ ক্ষেতে নিয়ে স্বামী-সন্তানের সামনে গৃহবধূকে ধর্ষণ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: ফের ধর্ষণের ঘটনা ঘটল ভারতের উত্তরপ্রদেশে। আর এবার স্বামী ও সন্তানের সামনেই মধ্যবয়সী এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল।

গতকাল শুক্রবার নিজের তিন বছরের শিশু সন্তানকে ডাক্তার দেখিয়ে ৩০ বছর বয়স্ক ওই নারী স্বামীর সঙ্গে মোটর বাইকে মুজাফফরনগরের বাড়িতে ফিরছিলেন, সেসময়ই চার পাষণ্ড ওই নারীকে পাশ্ববর্তী একটি আখের জমিতে টেনে গিয়ে তার ওপর অত্যাচার চালায় বলে অভিযোগ। একটি গাড়িতে কারে এসে ওই চার যুবক তাদের পথ আটকায়, তাদের প্রত্যেকেরই সঙ্গে অস্ত্র ছিল বলেও অভিযোগ। ধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হলে তার ফল ভাল হবে না বলেও দুর্বত্তরা ওই নারী ও তাঁর স্বামীকে হুমকি দেয়। ঘটনার পর ওই দম্পতি সাহায্যের জন্য চিৎকার শুরু করলে পাশের গ্রাম থেকে কয়েকজন কৃষক এসে তাদের সেখান থেকে উদ্ধার করে। এরপর ঘটনাটি জানানো হয় পুলিশকেও। পরে নির্যাতিতা ওই নারী ও তার স্বামীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনায় রাজ্যজুড়ে যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ধর্ষিতা ওই নারী জানান, ‘চার দুর্বত্ত আমায় একটি আখের ক্ষেতে ধরে নিয়ে যায় এবং ধর্ষণ করে। তারা ক্রমাগত আমার সন্তানকে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে এবং আমার স্বামীকে বেঁধে রেখে তাকে মারধর করে’।

মুজাফফরনগরের (গ্রামীণ) পুলিশ সুপার অজয় সহদেব জানান, ‘ওই নারী যখন একটি গ্রাম থেকে তার স্বামী ও তিন মাসের শিশু সন্তানের সঙ্গে মোটরবাইকে করে বাসায় ফিরছিলেন তখনই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। ওই নারী এবং তার স্বামীর মেডিকেল পরীক্ষা করা হয়েছে। আমরা তার রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছি। ইতিমধ্যেই তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে’।

ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত ওই চার যুবক, যদিও তাদের খোঁজে অভিযান শুরু হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »