কোথাও বৃষ্টি, কোথাও খটখটে রোদ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: এ এক অদ্ভুত বৃষ্টি হয়ে গেল রাজধানীতে। একটি এলাকা বৃষ্টিতে ভিজেছে, তো অন্য এলাকায় ছিল খটখটে রোদ। রাজধানীর আগারগাঁও থেকে কাজীপাড়া এলাকার বাসিন্দাদের বৃষ্টিতে ভিজতে হয়েছে। বৃষ্টিতে রাস্তার পাশে পানিও জমেছে। আর পল্লবী থেকে শুরু করে উত্তরা পর্যন্ত ছিল খটখটে রোদ। আর হাতিরঝিলের বৃষ্টি তো রীতিমতো দৃষ্টিনন্দন দৃশ্যের জন্ম দিয়েছিল। হাতিরঝিলের একাংশ ছিল বৃষ্টিবহুল আর অন্য অংশ ছিল বৃষ্টিহীন।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের হিসাবে গতকাল শুক্রবার রাজধানীর মিরপুর এলাকায় পাঁচ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। তবে অন্য এলাকায় বৃষ্টিপাতের হিসাব তাদের কাছে নেই। এই বৃষ্টির মধ্যেও তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি। বিগত বছরগুলোতে অক্টোবরের ৬ তারিখে রাজধানীর তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ৩২ ডিগ্রি পর্যন্ত ওঠে। কিন্তু গতকাল তা-ও ছাড়িয়ে যায়। গতকাল রাজধানীর তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, রাজধানীসহ দেশের বেশির ভাগ এলাকায় মৌসুমি বায়ু দুর্বল অবস্থায় রয়েছে। সপ্তাহখানেকের মধ্যে এটি বাংলাদেশ ভূখণ্ড থেকে সরে যেতে পারে। তাই বিদায় নেওয়ার আগে তা দেশের বিভিন্ন এলাকায় খণ্ড খণ্ডভাবে বৃষ্টি ঘটাচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী আজ শনিবার খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের অনেক স্থানে এবং ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু স্থানে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা এক থেকে তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। ফলে হালকা শীতের অনুভূতি বাড়তে পারে।

এদিকে গতকাল দেশের সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে টেকনাফে ২৫ মিলিমিটার। খেপুপাড়ায় ১১ ও কক্সবাজারে ২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টাঙ্গাইলে ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »