মেয়ের উত্যক্তকারীর বিচার না পেয়ে মায়ের আত্মহত্যা

Feature Image

মানিকগঞ্জ থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  মানিকগঞ্জের সাটুরিয়াতে মেয়ের উত্যাক্তকারীর বিচার না পেয়ে মাজেদা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। বুধবার সকালে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের ছনকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মাজেদা ওই গ্রামের সূর্য খানের স্ত্রী। উক্তত্যকারী বখাটে সুজন মিয়া ওই ইউনিয়নের ফাজিলা পাড়া গ্রামের বকতার মিয়ার ছেলে।

সূর্য খান জানান, বরাইদ আব্দুর রহমান খান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীতে পড়ে তার মেয়ে। একই শ্রেণিতে পড়ে সুজন মিয়া । স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে র্দীঘদিন যাবৎ তার মেয়েকে উত্যাক্ত করে আসছিল সুজন। এর কারনে সূর্য খান প্রতিদিন তার মেয়েকে স্কুলে আনা-নেয়া করতেন। কিন্তু মঙ্গলবার স্কুল চলাকালে সুজন তার মেয়ের সাথে খারাপ ব্যবহার করে। স্কুলে শিক্ষকরা থাকার পরেও মেয়ের সাথে কেন সুজন খারাব ব্যবহার করেছে এর কারন জানতে চায় মেয়ের মা মাজেদা। ওই বখাটে সুজনের বিচার না করায় অভিমান করে তিনি গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছেন।

সূর্য খান আরো জানায়, মেয়েকে উত্যক্ত করায় এর আগেও স্কুলে বেশ কয়েকবার বখাটে সুজনের বিচার হয়েছে। ঘটনার পর পর যদি শিক্ষকরা সুজনের বিচার করতে তাহলে তার স্ত্রী অভিমান করে আত্মহত্যা করতে না। এই আত্মহত্যার জন্য বখাটে সুজনই দায়ি।
সাটুরিয়া থানার ওসি মোঃ আমিনুর রহমান বলেন, নিহত গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের মানিকগঞ্জ ২৫০ শষ্যা হাসপাতালে পাঠানো হযেছে। এব্যাপারে সাটুরিয়া থানায় একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।

 

আরো খবর »