এই দিনেই তাহলে ধ্বংস হতে চলেছে পৃথিবী?

Feature Image

এক না একদিন পৃথিবী ধ্বংস হবে একথা বহুবারই শোনা গিয়েছে। বিভিন্ন পুরাণে, বিভিন্ন নথিতে সেই কথার উল্লেখ্য করা হয়েছে। বহু গবেষক বহু বিজ্ঞানীরা ভবিষ্যদ্বানী করেছেন পৃথিবী ধ্বংসের তারিখ নিয়ে। তবে কিছু ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে, আবার কিছু ধারণা সত্য বলেও বিবেচিত হয়েছে। বহু ছবিও হয়েছে এই নিয়ে।

তবে আজ দেখা যাক পৃথিবী ধ্বংস নিয়ে করা ভবিষ্যদ্বানী থেকে কি উঠে আসছে?

লিওনার্দো দ্যা ভিঞ্চি একটি গবেষণায় জানিয়েছিলেন যে, ৪০০৬ সালে এমন একটি সুনামি আসতে চলেছে জার ফলে পৃথিবীর সব জায়গা জলের তলায় চলে যাবে। তিনি জানিয়েছিলেন, ২১ মার্চ সমুদ্রের এক বিশাল ঢেউ লন্ডভন্ড করে দেবে গোটা পৃথিবীকে। যার ফলে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে সব কিছু।

বাবা ভাঙ্গা বুলগেরিয়ার একজন ভবিষ্যদ্বক্তা। এর আগে তিনি এমন কিছু ভবিষ্যদ্বানী করেছেন যা সত্য প্রমাণিত হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন ৫০৭৯ সালে পুরোপুরি ভাবে ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী।

আইজ্যাক নিউটন বিভিন্ন নথি ঘেঁটে জানিয়েছিলেন ২০৬০ সাল থেকে পৃথিবী ধ্বংস হতে শুরু করবে। এই বিষয়ে নিউটন বহু বইও লিখেছেন। তিনি জানান ২০৬০ সালে নাকি ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী।

স্টিফেন হকিংসের মতে মানুষের কাছে মাত্র ১০০০ বছর আছে। আর তারপরেই নাকি ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী। এই ব্যাখ্যাটি তিনি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সেমিনারেও জানিয়েছিলেন।

এছাড়াও মায়া সভ্যতার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী জানানো হয়েছিল যে ২০১২ সালে ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী। তবে সেই ব্যাখ্যা ভুল প্রমাণিত হয়৷

সুতরাং পৃথিবী ধ্বংসের পিছনে রয়েছে নানা মতামত। তবে বহু মত আজও মানুষ বিশ্বাস করেন। হয়তো কোনও একদিন মিলে যেতে পারে কোনও একটি ভবিষ্যদ্বানী৷

আরো খবর »