আপনার সম্পর্কটি কি ভালোবাসা, নাকি মোহ জেনে নিন ?

Feature Image

নিউজ ডেস্কঃ বর্তমান সময়ের সম্পর্কগুলো খুব সহজেই ঠুনকো কাঁচের মতো ভেঙে যেতে দেখা যায়। এর পেছনের মূল কারণ কি কেউ জানেন? কারণটি হচ্ছে তারা যে সম্পর্কটি গড়ে তুলছেন সেটির ভিত্তি ভালোবাসা নাকি শুধুই ভালো লাগা তা সঠিক ভাবে বুঝতে না পারা। আর সেকারণেই, শুধু ভালো লাগার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে সম্পর্ক গড়ে তোলেন অনেকেই যা কিছুদিনের মধ্যেই ভেঙে যায়। তাই নিজে থেকেই যাচাই করে নিন আপনি বর্তমানে যে সম্পর্কে রয়েছেন সেটি আসলেই কিসের উপর ভিত্তি করে আছে? ভালোবাসা নাকি ভালো লাগা? যদি বুঝে উঠতে পারেন তাহলে সময় থাকতেই সরে আসতে পারেন নতুবা আরও গভীরভাবে ভালবাসতে পারেন পছন্দের মানুষটিকে।

অনেক সময়েই আমরা নিজের ভালোবাসার সম্পর্কটি নিয়ে দ্বিধায় ভুগে থাকি। দ্বিধাটি এমন যে মানুষটি ঠিকমতো বুঝে উঠতে পারেন না তার সম্পর্কটি আসলেই কতোটুকু গভীর। সম্পর্কটি কি এতোটাই গভীর যে পুরো জীবন ভালোবাসার মানুষটির সাথে কাটিয়ে দেয়া যায়? নাকি এটি শুধুই ক্ষণিকের মোহ, যার মধ্যে আসতে পারে পরিবর্তন।

এই সমস্যাটির মুখোমুখি যারা হয়েছেন তারাই বুঝতে পারেন এই চিন্তাটি কতোটা যন্ত্রণাদায়ক। সে যাই হোক, কিন্তু এই যন্ত্রণা ও মনের মধ্যে প্রশ্ন নিয়ে তো সম্পর্ক এগিয়ে নেয়া যায় না। প্রথমে নিজের মন থেকে দূর করতে হবে সংশয়। কিন্তু কীভাবে দূর করবেন? নিজেকে করুন এই প্রশ্নগুলো। দেখুন দূর হয়ে কিনা আপনার মনের এই ভালোবাসা ও মোহ সংক্রান্ত দ্বিধাটি।

আপনি কি আপনার সম্পর্কটিতে সুখি?

সুখ পুরোপুরি মানসিক একটি ব্যাপার। মানুষকে সম্পর্কে এই একটি কারণেই জড়াতে দেখা যায়। তা হলো মনের শান্তি পাওয়া। নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন আপনি আপনার সম্পর্কে থেকে কি অনেক শান্তি পাচ্ছেন? আপনি কি সুখি? যদি সুখি হয়ে থাকেন তবে বুঝবেন এটি ভালোবাসা। কারণ যে সম্পর্ক মোহের মাধ্যমে তৈরি হয় সেখানে মানসিক শান্তি পাওয়া যায় না।

আপনি কি আপনার সঙ্গীকে সত্যিকার অর্থেই পছন্দ করেন?

ভালবাসায় সঙ্গী কী করছেন, দেখতে কেমন, তার পরিবারের আর্থিক অবস্থা খারাপ কিনা, তার অভিভাবক কী করেন ইত্যাদি কোনো ব্যাপার না। আপনি ভালোবাসেন আপনার সঙ্গীকে তার রূপরঙ নয়। নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন আপনার সঙ্গীর কোন জিনিসটি আপনার পছন্দ। সঙ্গীর ব্যক্তিত্বকে নাকি তার বাহ্যিক কোনো রূপকে। এই প্রশ্নের উত্তরেই আপনি বুঝে যাবেন আপনার সম্পর্কটি কি ভালোবাসা নাকি মোহ।

আপনি কি আপনার সঙ্গী ছাড়া নিজেকে চিন্তা করতে পারেন?

অনেকেই আছেন নিজের পরিবার কিংবা অন্যান্য মানুষের কারণে নিজের সঙ্গীকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হন। কিন্তু সত্যিকার কথা কি জানেন? আপনি যদি তাকে আসলেই অনেক বেশি ভালোবাসেন তবে আপনি তাকে ছাড়া নিজেকে কল্পনা করতে পারবেন না। আপনার চিন্তাতেই আসবে না তাকে ছাড়া আপনার জীবন। সমস্যা সমাধানের জন্য আপনি তাকে ছেড়ে দেবেন না, বরং সমস্যার পেছনে উঠে পড়ে লাগবেন।

আপনার সঙ্গীর সবকিছুই কি আপনি মেনে নিতে পারেন?




একজন মানুষকে ভালোবাসা শুধু তার কিছু গুণকে ভালোবাসা নয়। তার সব কিছু, দোষ-গুণ সব কিছুকে ভালোবাসা। নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনার সঙ্গীর বদঅভ্যাস অথবা দোষগুলোকে আপনি মেনে নিয়ে চলতে পারবেন তো? তার ভুল ক্ষমা করে দেয়ার ক্ষমতা কি আপনার আছে? যদি তা পারেন তবে আপনি তাকে সত্যিকার অর্থেই ভালোবাসেন নতুবা নয়।

আপনাদের সম্পর্কে নৈতিকতা কতোটুকু?

আপনি আপনার সঙ্গীকে এবং তিনি আপনাকে কতোটুকু বিশ্বাস করেন? আপনাদের মধ্যে কোনো বিষয় কি গোপন রয়েছে? আপনারা কি একজন অপরজনকে তার প্রাপ্য সম্মান ও মূল্য দিতে পারেন? যদি প্রশ্নগুলোর উত্তর ইতিবাচক হয়ে থাকে তবে অবশ্যই আপনাদের মধ্যে রয়েছে সত্যিকার ভালোবাসা। তা না হলে এই ভালোবাসা ক্ষণিকের মোহ ব্যতীত কিছুই নয়।

আরো খবর »