যে কোনও মুহূর্তেই বাধতে পারে পরমাণু যুদ্ধ!

Feature Image

যে কোনও মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারমাণবিক যুদ্ধ বাধতে পারে। এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন জাতিসংঘে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত।
তিনি বলেন, কোরিয়া উপদ্বীপের বর্তমান পরিস্থিতি এমন একটা জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে যেখানে দাঁড়িয়ে যুদ্ধ ছাড়া আর কোনও উপায় থাকছে না।

জাতিসংঘে উত্তর কোরিয়ার ডেপুটি অ্যাম্বাসাডার কিম ইন রিয়ং জানান, উত্তর কোরিয়া বিশ্বের একমাত্র দেশ যাকে ১৯৭০ সাল থেকে ক্রমাগত পারমাণবিক হামলার হুমকি দিয়ে আসছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

তাঁর দাবি, আত্মরক্ষার স্বার্থে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র রাখার সব অধিকার রয়েছে। প্রতিবছরই উত্তর কোরিয়াকে শক্তি প্রদর্শন করতে সামরিক মহড়া চালায় এবং তাদের পরমাণু অস্ত্র-শস্ত্রের প্রদর্শন করে যুক্তরাষ্ট্র।

কিন্তু তার চেয়েও বেশি বিপজ্জনক হল, আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্র তাঁদের রাষ্ট্রপ্রধানকে শেষ করার গোপনে পরিকল্পনা করছে বলেও অভিযোগ করেছেন কিম ইন রিয়ং।

চলতি বছরেই উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান কিম জং উন দাবি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পাল্লা দিতে সবরকমভাবে প্রস্তুত পিয়ংইয়ং। পরমাণু অস্ত্রের নিরিখে তাদেরও অ্যাটম এবং হাইড্রোজেন বোমা রয়েছে বলে দাবি করেছিলেন তিনি।

সেইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়ে কিম বলেছিলেন, গোটা মার্কিন ভূখণ্ডই তাদের মিসাইলের রেঞ্জে রয়েছে, ফলে যুক্তরাষ্ট্র যদি উত্তর কোরিয়ার এক ইঞ্চি জমিও দখল করতে আসে তাহলে তার ফল ভুগতে হবে তাদের।

এদিকে জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন একগুচ্ছ নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও এখনও উত্তর কোরিয়ার পাশেই রয়েছে রাশিয়া।
তবে জাতিসঙ্ঘের নির্দেশিকা মেনে বেশ কিছু ক্ষেত্রে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা হয়েছে বলে গতকাল সোমবার দাবি করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

আরো খবর »