প্রেমে সাড়া না দেওয়ায় কলেজছাত্রীকে কুপিয়েছে বখাটে

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

নেত্রকোনা: নেত্রকোনায় প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এক কলেজছাত্রীর চুল কেটে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছেন এক বখাটে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে কেন্দুয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত কলেজছাত্রী দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। তাঁর বাড়ি কিশোরগঞ্জে। তবে তিনি তাঁর পরিবারের সঙ্গে কেন্দুয়ায় ভাড়া বাসায় থাকেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরেই কেন্দুয়ার গগডা ভূঁইয়াপাড়ার ইমন মিয়া (২৪) ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু মেয়েটি এতে সাড়া দেননি। আজ বেলা সাড়ে তিনটার দিকে তিনি মেয়েটিকে বাসার পাশের একটি স্থানে ডেকে নিয়ে আবারও প্রেমের প্রস্তাব দেন। মেয়েটি তাতে সাড়া না দেওয়ায় ইমন ক্ষিপ্ত হয়ে প্রথমে মাথার চুল কেটে দেন। পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালান। মেয়েটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে গেলে পালিয়ে যান ইমন। পরে গুরুতর অবস্থায় মেয়েটিকে প্রথমে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য চিকিৎসকদের পরামর্শে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মেয়েটির হাত, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে অন্তত ১৫টি কোপ দেওয়া হয়েছে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানতে চাইলে কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, তিনি একটি মামলায় সাক্ষ্য দিতে ঢাকায় আছেন। ওই থানার উপপরিদর্শক ছামেদুল হক বলেন, ঘটনার সঙ্গে ইমন নামের একজন জড়িত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাঁকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »