বি স্নাতক ভর্তি পরীক্ষায় নেগেটিভ মার্কিং চালু

Feature Image

কু্ষ্টিয়া:  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় প্রথমবারের মত নেগেটিভ মার্কিং চালু করা হয়েছে। প্রতিটি প্রশ্নের ভুল উত্তরের জন্য দশমিক দুই পাঁচ (০.২৫) নম্বর কেটে নেয়া হবে।

চারটি ভুল উত্তরের জন্য পরীক্ষার্থীর এক (১.০০) মার্ক কেটে নেয়া হবে। মেধাবী ও যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের সুযোগ দিতেই নেগেটিভ মার্কিং চালু করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডঃ রাশিদ আসকারী।

২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষেই প্রথমবারের মত স্নাতক ভর্তি পরীক্ষায় ভুল উত্তর প্রদানকারীর জন্য নেগেটিভ মার্কিং চালু করা হয়েছে, যা আগের বছরগুলোতে ছিলোনা। এছাড়াও কয়েকটি বিভাগের আসন সংখ্যা বৃদ্ধি, ভর্তি ফরমের মূল্য বৃদ্ধি, উপজাতি কোটা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্টার অফিস সুত্রে জানা যায়, ইবির ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা ২৫ নভেম্বর থেকে ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ৮টি ইউনিটের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষার আবেদন গত ১৫ অক্টোবর মধ্যরাত থেকে শুরু হয়েছে, যা আগামী মাসের ১০ই নভেম্বর পর্যন্ত।

এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ টি অনুষদের অধীনে ৩৩টি বিভাগে ২২৭৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের (রকেট) মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ভর্তির আবেদন সম্পন্ন করতে হবে।

এ বছর ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিটি ভর্তি আবেদন ফরমের মূল্য ৪৫০ টাকা থেকে ৫০ টাকা বৃদ্ধি করে ৫০০ টাকা করা হয়েছে।

এ ছাড়াও আগামী ভর্তি পরীক্ষায় ৫ টি উপজাতি কোটা বৃদ্ধি করে ১৫টি কোটা এবং ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত ছয়টি বিভাগের প্রতিটিতে ৫টিকরে মোট ৩০টি আসন বৃদ্ধি করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ টি অনুষদের মধ্যে চারটি অনুষদের অধীনে বৃদ্ধি পেয়েছে আরো আটটি নতুন বিভাগ। এই নতুন আটটি বিভাগকে ভর্তি পরীক্ষার বিভিন্নইউনিটে যোগ করা হয়েছে।

ধর্মতত্ত্ব অনুষদের অধীনে ‘এ’ ইউনিটে আল-কুরআন অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ, আল-হাদিস অ্যান্ডইসলামিক স্টাডিজ, দাওয়া’হ অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজবিভাগ।

মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভূক্ত ‘বি’ ইউনিটে রয়েছে ইংরেজি, বাংলা, আরবি, ইসলামের ইতিহাসও সংস্কৃতি এবং ফোকলোর স্টাডিজ বিভাগ। ‘সি’ ইউনিটে রয়েছে, অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, লোকপ্রশাসন, সদ্য চালু হওয়া ডেভলপমেন্ট স্টাডিস এবংসোশ্যাল ওয়েলফেয়ার বিভাগ।

ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত অনুষদের অধীনস্থ ‘ডি’ ইউনিটে রয়েছে ফলিত রসায়ন ওক্যামিকৌশল, বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিকইঞ্জিনিয়ারিং, ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি এবং নতুন চালুহওয়া ফার্মেসি ও ইনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড জিওগ্রাফি বিভাগ।

‘ই’ ইউনিটে ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইলেকটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই), কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং,ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিংও সদ্য চালু হওয়া বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। ‘এফ’ ইউনিটে গণিত ও পরিসংখ্যান বিভাগ।

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের অধীনে ‘জি’ ইউনিটে রয়েছে মোট ৬ টি বিভাগ: ১)এ্যাকাউন্টিং এবংইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের, ২)ব্যবস্থাপনা বিভাগ, ৩) ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগ, ৪) মার্কেটিং বিভাগ, ৫) হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগ, ও ৬) ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ।

আইন অনুষদের ‘এইচ’ ইউনিটের অধীনে ১) আইন বিভাগ, ৩)আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ , ৩)আইনও ভুমি ব্যাবস্থাপনা বিভাগ সহ মোট তিনটি বিভাগআছে।

আবেদনের যোগ্যতা: বিজ্ঞান শাখা থেকে সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০সহ এসএসসি ও এইচএসসি উভয় মিলে জিপিএ ৭.৫০ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা আবেদন করতেপারবেন। মানবিক শাখা থেকে সর্বনিম্ন জিপিএ-৩ সহ উভয় মিলে জিপিএ ৬.৫০ প্রাপ্তরা এবং বাণিজ্য শাখা থেকে সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.২৫সহ উভয় মিলে ৬.৭৫প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে।

ভর্তি আবেদন-সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (www.iu.ac.bd) থেকে জানা যাবে।

আরো খবর »