পানি আর যানজটে আটকা হাজারো যাত্রী

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

গাজীপুর: ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে গতকাল শুক্রবার ভোর থেকে সৃষ্ট যানজট আজ শনিবার সকালেও রয়েছে। মহাসড়কের গাজীপুরের চন্দ্রা থেকে মির্জাপুরের সোহাগপুর পর্যন্ত প্রায় ১৬ কিলোমিটার এলাকায় এবং টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে করটিয়া পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার যানজট। চন্দ্রা থেকে নবীনগর সড়কের আট কিলোমিটার পর্যন্ত যানজট রয়েছে। চন্দ্রা থেকে গাজীপুর রাস্তাতেও তিন কিলোমিটর পর্যন্ত যানজট।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ও গাজীপুরের চন্দ্রা থেকে কালিয়াকৈর-নবীনগর সড়কের বিভিন্ন জায়গায় এমনিতেই গর্ত, বৃষ্টিতে এসব গর্তে জমেছে পানি। একই সঙ্গে চলছে চার লেন তৈরির খোঁড়াখুঁড়ির কাজ। এতে শুক্রবার ভোররাত থেকে শুরু হয় যানজট। রাস্তা পার হতে সময় লাগছে দ্বিগুণেরও বেশি।

কোনাবাড়ি হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হোসেন সরকার জানান, বৃষ্টির কারণে রাস্তার খানাখন্দে পানি জমেছে। এতে যানবাহন স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারছে না। এ কারণে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

গাজীপুরের নেউজের হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল হাই বলেন, গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী তুরাগ নদী পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার পথ। এ পথের ভোগরা বাইপাস মোড়, ছয়দানা মালেকের বাড়ি, বোর্ডবাজার এলাকার রাস্তার দুইপাশে হাঁটু পানি জমে আছে। এ কারণে ভোর থেকে এ পথে যানজট লেগে আছে। গাড়ি চলতে পারছে না।

শফিপুর এলাকার বাসিন্দা চাকরিজীবী আলতাফ হোসেন জানান, ভোগরা এলাকায় প্রায় আড়াই ঘন্টা ধরে একই স্থানে তিনি বসে আছেন। রাস্তায় পানি জমে থাকার কারণে যানবাহনে জটলা লেগে রয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »