কুষ্টিয়ায় ভিক্ষুক পুনর্বাসনে ব্যতিক্রমধর্মী উদ্দোগ সদর ইউএনও

Feature Image

কু্ষ্টিয়া: কুষ্টিয়ায় ভিক্ষুক পুনর্বাসনে ব্যতিক্রমধর্মী কাজ করছে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ ইবাদত হোসেন। ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ করতে তৎকালীন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আবদুস সামাদের নির্দেশনায় ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষনা করা হয় সদর উপজেলাকে। এরপর থেকে নানান উদ্যোগ করা হয়।

কুষ্টিয়া সরকারি শিশু পরিবার (বালিকা) পরিদর্শন করেছেন কু্ষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান।

শুক্রবার বিকেলে তিনি আকষ্মিক পরিদর্শন করেন। এমময় সেখানে পুনর্বাসিত এতিম শিশুদের সার্বিক খোঁজখবর নেওয়ার পাশাপাশি পুনর্বাসিত ভিক্ষুকদেরও খোঁজখবর নেন।

সেখানে বসবাসরত শিশু ও পুনর্বাসিত ভিক্ষুকদের খাওয়া-দাওয়া পোশাক-পরিচ্ছদসহ সকল বিষয়ে নেন সন্তোষ প্রকাশ করেন।

প্রসঙ্গত গত এক সপ্তাহে ৫০ জন ভিক্ষুককে ভিক্ষাবৃত্তি না করতে তাদের সচেতন করাসহ তাদের পূনর্বাসিত করা হয়। এরমধ্যে কিছু ভিক্ষুককে ভিক্ষাবৃত্তি না করার জন্য মুচলেকা দিয়ে তাদের পরিবার পরিজনের কাছে ফেরত দেওয়া হয়। অবশিষ্ট ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন করা হয়েছে। তাদের নতুন পোষাকসহ নানান সুযোগ সুবিধা দিয়ে আসছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

এসময় কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক, শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ হাবিবৃর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইবাদত হোসেন, শিশু পরিবারের তত্বাবধায়কসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।।

আরো খবর »