ভয় কাটিয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারবে কি টাইগাররা?

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ক্রীড়া ডেস্ক: জয়ের স্বপ্ন দেখাটাই এখন বাংলাদেশের জন্য অলীক কল্পনা! সাদা পোশাকের ক্রিকেটের পর ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেও অসহায় আত্মসমর্পণ। মোস্তাফিজুর রহমানের পর তামিম ইকবালও ইনজুরির ধাক্কায় সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন। বোলারদের ছন্নছাড়া বোলিং, ব্যাটিংয়ে দু’একজন ছাড়া পারফর্ম করতে না পারায় শেষ ওয়ানডেতে জয় অনেকের কাছেই স্বপ্ন। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজও হাতছাড়া হয়েছে আগেই। হোয়াইটওয়াশ থেকে রক্ষা পাওয়ার শেষ সুযোগ আজ। স্বাগতিকদের ধারাবাহিক দাপুটে পারফরম্যান্সে ইস্ট লন্ডনের বাফালো পার্কেও বাংলাদেশের সম্ভাবনা দেখতে পারছেন না অনেকে। তারপরও যদি, কিন্তুর হিসাবে মাশরাফি মুর্তজা টিমটিম আলো দেখছেন।

শুরুতে মোস্তাফিজুরের ইনজুরি বোলিং আক্রমণে সফরকারীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছিল। বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম দলে থাকলেই তো টপঅর্ডার শক্তিশালী হয়। তবে প্রথম থেকে ইনজুরির মধ্যদিয়ে যাওয়া তামিমের সিরিজ থেকে বাদ যাওয়াটা আরও দুশ্চিন্তার হয়ে এসেছে টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে। তামিম ছিটকে যাওয়ায় একাদশে একটি পরিবর্তন আনতে হচ্ছে। ফর্মহীনতার কারণে প্রথম দুই ওয়ানডেতে সুযোগ না পাওয়া সৌম্য সরকারকে আজ একাদশে দেখা যেতে পারে। দলে পরিবর্তন আসতে পারে আরও একটি। নাসির হোসেনের জায়গায় অফ-স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ বা সাইফউদ্দিনের থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। দুই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বলার মতো পারফরম্যান্স মুশফিকের একটি করে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইমরুল কায়েসের ফিফটি। এছাড়া একাধিক বড় জুটি গড়তে না পারা আর প্রচুর ডট বল দেয়াই বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বড় সমস্যা। এ সমস্যা কাটানোর জন্য টপঅর্ডারে শুধু রান করলেই হবে না, খেলতে হবে আক্রমণাত্মক, রান তুলতে হবে দ্রুত।

প্রথম দুটি ম্যাচের উইকেটে সাড়ে তিনশ’ রানও নিরাপদ ছিল না। ইস্ট লন্ডনের বাফালো পার্কে কিছুটা ভিন্ন ধরনের উইকেট হতে পারে। এখানে স্লো এবং লো উইকেট হয়ে থাকে। আড়াইশ’ রান হতে পারে লড়াই করার মতো পুঁজি। ম্যাচের পারফরম্যান্স যাই হোক না কেন, সফরে টস ভাগ্যটা ভালো মুশফিক-মাশরাফিদের। টসে এখনও হারেনি সফরকারীরা। তবে বাফালো পার্কে এ বছরের লিস্ট ‘এ’ ম্যাচের পরিসংখ্যান বলছে যারাই পরে ব্যাট করেছে তারাই বেশি সফল হয়েছে। ইস্ট লন্ডনের আবহাওয়া আজ ভালো থাকবে বলেই জানিয়েছে সেখানকার আবহাওয়া অধিদফতর।

প্রথম ওয়ানডেতে কুইন্টন ডি কক ও হাশিম আমলা আর কাউকে ব্যাটিংয়ে নামতে দেননি। দ্বিতীয় ম্যাচে সাকিব আল হাসান দ্রুত দুটি উইকেট তুলে নিলেও ডি ভিলিয়ার্স ঝড়ে সব লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। আমলার পরিবর্তে শেষ ম্যাচে দেখা যাবে মার্করামকে। এছাড়া দলে ১৯ বছর বয়সী অলরাউন্ডার মোল্ডারকে নিয়েও পরীক্ষা করতে পারে স্বাগতিকরা।

সফরে বাংলাদেশের বড় সমস্যা বোলিং। টেস্ট ও ওয়ানডে মিলে চার ম্যাচে বাংলাদেশের বোলাররা এখন পর্যন্ত মাত্র ১৯ উইকেট নিতে পেরেছে। কিপটে বোলিং আর স্বাগতিকদের ম্যাচে ১০ উইকেট নিতে না পারলে জয়ের সুযোগ তৈরি করাই কঠিন হবে। আগের ম্যাচে শেষদিকে ভিলিয়ার্সকে আউট করে ঝড় থামিয়েছিলেন পেসার রুবেল হোসেন। শেষ পর্যন্ত তিনি নিয়েছিলেন চারটি উইকেট। ততক্ষণে রান পাহাড়ের চূড়ায় উঠে যায় স্বাগতিকরা। আজ রুবেল তিনটি উইকেট নিতে পারলেই বাংলাদেশের পঞ্চম বোলার হিসেবে ১০০ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব গড়বেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »