‘ঢাকায় জলাবদ্ধতা হতেই পারে’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: ঢাকায় দুই দিনে ২৩০ মিলি মিটার বৃষ্টি হয়েছে। ফলে জলাবদ্ধতা হতেই পারে বলে মনে করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

রোববার সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে ‘মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তৃতা করছিলেন। সেমিনার শেষে ঢাকার অসহনীয় জলাবদ্ধতা প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

পাশাপাশি তিনি সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে ও বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে বিরাজমান সমন্বয়হীনতার কথাও উল্লেখ করেন।  এছাড়াও অতিবর্ষণজনিত জলাবদ্ধতার পেছনে ওয়াসার দায় আছে বলেও মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, বর্তমানের যে জলাবদ্ধতা তা এক বা দুইদিনে হয়নি। বরং ২৫ থেকে ৩০ বছরের সমন্বয়হীনতার কারণেই আজ এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ সমস্যা এক বা দুইদিনে সমাধান করা সম্ভব হবে না।

এর আগে সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাঈদ খোকন বলেন, সিটি কর্পোরেশনের অন্য যেকোনো কাজের চেয়ে সবচেয়ে কঠিন কাজ হচ্ছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। উচ্চ আদালতের নির্দেশে সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত কোনো বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম এখন আর পরিচালনা হয় না।

পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা নিরলসভাবে কাজ করেন বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনেক সময় সকাল ৭টার পরও কাজ করতে হয় তাদের। তবে তাদের পরিষ্কার করার পরও নগরবাসী দোকান পরিষ্কার করেন, ঘরের রান্না শেষে আবর্জনা পথে ফেলেন এবং সড়কগুলোকে আবার নোংরা করে ফেলেন।

৫ হাজার ৭০০ ডাস্টবিন দেয়া হয়েছিল পথে। কিন্তু এরই মধ্যে অনেকগুলো চুরি হয়ে গেছে। অনেকগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। অনেকেই সেগুলো নিয়ে ছাদে ফুলের টব হিসেবেও ব্যবহার করছেন। আমাদের এসব অভ্যাস দূর করতে হবে।

সিটি কর্পোরেশনের প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোর দুর্বলতা আছে স্বীকার করে তা দূর করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। মেডিকেলের বর্জ্য বিক্রির বিষয়টিতে সতর্কতার প্রয়োজন আছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »