এমন ৭ জিনিস নামের সঙ্গে যাদের উৎপত্তির মিল নেই

Feature Image

ফ্রেঞ্চ কিস কি ফরাসী দেশের স্পেসাল চুম্বন? নাকি ‘ইন্ডিয়া ইংক’ ভারতের বিশেষ কালি? কোনওটাই নয়৷ আসলে নামে কী এসে যায়! এমন বহু জিনিসকে আমরা এমন নামে চিনি৷ কিন্তু তাদের উৎপত্তির কাহিনি একদম আলাদা৷

১. ফ্রেঞ্চ টোস্ট

নাহ, এ খাবার মোটেই ফরাসী দেশের নয়৷ জানা যায়, জোসেফ ফ্রেঞ্চ নামে এক ব্যক্তি এই খাবার প্রথম তৈরি করেন৷ জোসেফ সাহেবের পদবীর জোরেই এ খাবার প্রায় ফরাসী দেশের হতে বসেছে৷

২. ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

এটিরও উৎপত্তি ফরাসী দেশে নয়৷ এর আবির্ভাব বেলজিয়ামে৷ কিন্তু আমেরিকান সৈনিকরা সম্ভবত ফরাসী ভাষায় কথা বলা বেলজিয়ানদের দেখে ধন্দে পড়েছিলেন৷ আর তাতেই বেলজিয়াম থেকে এর ঠিকানা হয়ে দাঁড়ায় ফ্রান্স৷

৩. ফ্রেঞ্চ কিস

ফ্লোরেন্টাইনের সম্পত্তি হওয়ার কথা এটি৷ এখানেও গোল বাধিয়েছেন সেনারাই৷ প্রথম বিশ্বযুদ্ধ থেকে যাঁরা ইউরোপ থেকে ফিরেছিলেন, তাঁরা এই নামেই এটিকে জনপ্রিয় করে তোলেন৷

৪. সুইস রোল

এর উদ্ভব সুইৎজারল্যান্ডে নয়, আমেরিকায়৷ ঊনিশ শতকের ইংরেজ রেসিপিতে এর দেখা মেলে৷ কিন্তু কেন যে একে সুইস রোল বলা হয়, তার কারণ আজও জানা যায়নি৷

৫. ইন্ডিয়া ইংক

এ কালি তো চিনের তৈরি৷ যেহেতু কাঁচামাল সব ভারত থেকেই যেত তাই নাম হয়েছে ভারতের নামেই৷

৬. ব্রাজিলিয়ান ওয়াক্স

আটের দশক থেকে যুক্তরাষ্ট্রে এটি জনপ্রিয়৷ কিন্তু ব্রাজিলে এর জন্ম নয়৷ তবে ব্রাজিল সুন্দরীদের বিকিনি পরার রেফারেন্স টেনে এটির এরকম নাম দেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়৷

৭. চাইনিজ হুইসপার

না শুধু চিনারাই ফিসফাস করে না৷ আসলে এই কথার উৎপত্তি ইউকে-তে৷ চিনেরা অকারণে কথা বলে এরকম একটি অর্থেই এ কথার প্রচলন৷ মূলত জাতিবিদ্বেষ থেকেই এ কথার জন্ম বলে অনুমান করা হয়৷

আরো খবর »