২২ দিন বন্ধ থাকার পর ফরিদপুরে ফের ইলিশ কেনা-বেচাঁর ধুম

Feature Image

ফরিদপুর থেকে হারুন-অর-রশীদঃ  মা ইলিশের প্রজননকাল সুরক্ষায় সরকারের ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার পর সোমবার থেকে আবার ফরিদপুরের চরভদ্রাসনের হাট,বাজার গুলোতে ইলিশ কেনা-বেচাঁর ধুম লেগেছে।

জানা যায়, ইলিশ মাছের প্রজননকাল সুরক্ষার জন্য সরকার ১ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত সারাদেশে ইলিশ মাছ আহরণ, বিপণন ও পরিবহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। আর এরই ধারাবাহিকতায় সারাদেশের সর্বত্ত হাট, বাজার গুলোতে উক্ত সময় পর্যন্ত ইলিশ মাছ কেনা বেচাঁ বন্ধ থাকে। কিন্তুু সরকারের ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার পর সোমবার থেকে আবার সারাদেশে নতুন ভাবে ইলিশ কেনা-বেচাঁ শুরু হয়েছে।

এদিকে সোমবার সকালে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদরের মাছ বাজারটি ঘুরে দেখা যায়, মাছ বিক্রেতারা তাদের ডালায় ছোট, বড়সহ বিভিন্ন আকারের ইলিশ মাছ ডালায় সাজিয়ে বিক্রির জন্য বসে আছে এবং কেনা-বেচাঁও হচ্ছেও ধুম ধামাক্কা। এসময় কেউ একটি, দুইটি বা তিনটি করেও ইলিশ মাছের ডালা সাজিয়ে বসে আছে। আর বেচাঁ-কেনাও হচ্ছেও ভরপুর।

এদিকে, সোমবার সকালে বাজারে ইলিশ মাছ কিনতে আসা ক্রেতা মোঃ সাগর শেখ ও রনি শিকদারের কাছে ইলিশ মাছের দামের বিষয়ে জানতে চাইলে তারা জানান, আমরা এতোদিন ইচ্ছে থাকা সত্তে¡ও ইলিশ মাছ খেতে পারি নাই। এখন সুযোগ পেয়েছি তাই মাছ কিনছি। তাই আমরা দামের দিকে তাকাচ্ছি না। তবে মাছের দাম তুলনাভাবে একটু বেশি।

অপরদিকে, মাছের দাম ও মাছের সরবরাহের বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন মাছ বিক্রেতা জানান, ২২ দিন বন্ধ থাকার পর এখন নদীতে বেশি মাছ পাওয়া যাচ্ছেনা। কেননা, মাছ সাগর থেকে এসে ডিম পেরে আবার মাছ সাগরে চলে গেছে। তাই আমরা বাজারে বেশি মাছ আনতে পারছি না। যাও আবার মাছ আনতে পারছি তার চেয়ে আবার মাছের খদ্দের ও মাছের চাহিদা বেশি। তাই তুলনামূলক ভাবেই একটু বেশি দামে খদ্দেরদের মাছ কিনতে হচ্ছে বলে জানান তারা।

আরো খবর »