‘নেত্রী স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন নির্বাচন হবে চ্যালেঞ্জিং’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, আগামী নির্বাচন চ্যালেঞ্জিং হবে। বিএনপি নির্বাচনে আসবে এমনটা ধরে নিয়েই এই চ্যালেঞ্জের কথা বলা হচ্ছে। এজন্য দলের সব কোন্দল মিটিয়ে জনগণের কাছে যাওয়ার তাগিদ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

বুধবার রাতে বেসরকারি টেলিভিশন সময় টিভির এক টক শো-তে তিনি এই কথা বলেন।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমরা নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ  হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেছি। সেখানে তিনি আমাদের বলেছেন আগামী নির্বাচন খুবই চ্যালেঞ্জিং হবে, কারণ বিএনপি নির্বাচনে আসবে। আমাদের মানুষের কাছে যেতে  হবে। উন্নয়ন করলেই হবে না, এ উন্নয়নের চিত্র মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। আমাদের অনেক ভুল ভ্রান্তি রয়েছে, অনেক দুর্বল দিক রয়েছে, সেগুলো বলতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধৃত্তি দিয়ে রাজ্জাক বলেন, ‘নেতাকর্মীদের অনেক অনেক প্রত্যাশা রয়েছে। আশা-আকাঙ্ক্ষা রয়েছে, যা আমরা পূরণ করতে পারিনি। অন্তঃকোন্দল রয়েছে, দ্বন্দ্ব রয়েছে। এ দ্বন্দ্বগুলো কমিয়ে নিয়ে আনতে হবে। জাতির স্বার্থে দেশের স্বার্থে মানুষকে বোঝাতে হবে।’

রাজ্জাক বলেন, ‘বার বার নেত্রী আমাদের স্মরণ করিয়েছেন এবারের নির্বাচন কিন্তু চ্যালেঞ্জিং হবে। এ নির্বাচনে বিএনপি অবশ্যই আসবে। বড় রাজনৈতিক দলগুলো আসবে। এখানে আমাদের জনগণের সমর্থন নিয়ে আসতে হবে। কাজেই তৃণমূলের যারা ভোটার তাদেরকে আমাদের বোঝাতে হবে।’

টক শোতে অংশ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ও বিএনপি বড় দুটি দলই নির্বাচন চায়। তাদের গন্তব্য অভিন্ন। কিন্তু এই অভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার জন্য তাদের পথ হয়তো ভিন্ন। বিএনপির নির্বাচনে যেতেই হবে, কারণ দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচন বর্জন করলে সংবিধান অনুযায়ী বিএনপির ভাগ্যে বড় যাতনা আছে। সেটা তাদের জানা আছে।’

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন টক শোতে আগামী নির্বাচন নিয়ে তার দলের অবস্থান তুলে ধরেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো বিকল্প নেই বলে জানান তিনি।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »