সন্তানদের সহযোগিতায় স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

বরিশাল: বরিশাল শহরে পারিবারিক কলহের জের ধরে সন্তানদের সহযোগিতায় স্বামী মোক্তার বেপারিকে (৪৫) হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মোক্তারের মৃত্যু হয় বলে জানান বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের রেজিস্ট্রার ডা. ইকতিয়ার আহসান।

তিনি জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মোক্তার বেপারির মৃত্যু হয়েছে।

নিহত মোক্তার উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের বোডস্কুল এলাকার অফেজ উদ্দিন বেপারির ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় সকালে বরিশাল শহরতলির চরবাড়িয়া থেকে স্ত্রী মুনিরা খাতুন, মেয়ে মিলি ও ছেলে আফিজুলকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের বোন শিল্পী বেগম জানান, মোক্তার বেপারির সঙ্গে বানারীপাড়া উপজেলার চাখারের মজিদ হাওলাদারের কন্যা মুনিরা খাতুনের প্রায় ২০ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ১৬ বছরের মেয়ে মিলি ও ১৪ বছরের আফিজুল রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়দের মাধ্যমে তিনি খবর পান ভাই তার ভাইকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে। এর পর হাসপাতালে এসে তার মৃত্যুর খবর পান।

স্থানীয় চরবাড়িয়ার ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহিদুল আলম তুহিন জানান, সকালে মোক্তারের স্ত্রী মনিরা ফোনে তাকে জানান, তিনি নিজেই স্বামীকে কুপিয়েছেন। এর পর তিনি বাড়িতে গিয়ে আহতাবস্থায় মোক্তারকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি।

তিনি আরও জানান, মোক্তার ও তার স্ত্রীর পারিবারিক কলহ দীর্ঘদিনের। এ নিয়ে ৩-৪ বার সালিশ বিচার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ওই পারিবারিক কলহের জের ধরেই এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

বরিশাল কাউনিয়া থানার ওসি নূরুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে মা ও ছেলে এবং মেয়ে মোক্তার হোসেনকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ইতোমধ্যে ওই তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তবে ছেলেমেয়েদের বাঁচানোর জন্য মা মনিরা একাই হত্যা করেছে বলে দাবি করছেন।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। পাশাপাশি লাশ হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »