রাইনের তলদেশে ১০ মিলিয়ন বছর আগের বিস্ময়কর দাঁত আবিষ্কার!

Feature Image

জার্মানির রাইন নদীর তলদেশে প্রাচীনকালের মানুষের দাঁত খুঁজে পেয়েছেন এক দল জীবাশ্মবিদ। এক পুরনো বেডে এই দাঁতের দেখা মিলেছে।
নুড়ি আর বালুচাপা পড়েছিল দাঁতটি।

জীবাশ্মবিদদের ধারণা, জীবাশ্ম হওয়া দাঁতের ওপরের পাটির ডান ও বাম পাশের দাঁতের অংশ মিলেছে। দক্ষিণ-পশ্চিম জার্মানির এপেলশেম শহরের কাছে পাওয়া গেছে ওই দাঁত। এগুলো ১০ মিলিয়ন (প্রায় এক কোটি) বছর আগের বলে জানিয়েছেন তারা। ফলে এই দাঁত হয়তো মানব সভ্যতার ইতিহাস নতুন করে লেখাবে।

মেইনজ ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামের সহ পরিচালক এবং খনন দলের প্রধান হার্বার্ট লুৎজ বলেন, এটা একেবারে ঠিকমতোই সংরক্ষিত হয়েছে। দেখলে মনে হবে নতুন একটা দাঁত। তবে আর সাদা নেই সেই দাঁত।
হলদেটে হয়ে গেছে।

লুৎজের মতে, এটি একটি যুগান্তকারী আবিষ্কার। প্রাগৈতিহাসিক যুগ থেকে মানুষের বিবর্তন বোঝার ক্ষেত্রে এই আবিষ্কার অনেক তথ্য দেবে।

মেইনজের মেয়র মাইকেল এবলিং বলেন, আসলে এ বিষয়ে নাটকীয়তা না করাই ভালো। তবে এটা বলা যায়, এই আবিষ্কারের পর থেকে মানুষের ইতিহাসের অনেক কিছুই বদলে যেতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা জানান, আমাদের বিলোপ পাওয়া আদি পুরুষ হলো হোমিনিস। এতদিন জানা ছিল, তারা ১ লাখ ২০ হাজার বছর আগে আফ্রিকা ত্যাগ করেন। কিন্তু এই দাঁত আরো অনেক আগের। আফ্রিকার পূর্বে আরো কিছু জীবাশ্ম মিলেছে। কিন্তু ওগুলো ২, ৩, ৪ বা ৫ মিলিয়ন বছর আগের। কিন্তু এপিলশেইমের এই দাঁতটি প্রায় ১০ মিলিয়ন বছর আগের।

২০১৬ সালে এই দাঁতের দেখা মিললেও বিজ্ঞানীরা বুঝতে পারছিলেন না যে, এটা কীসের এবং কত আগের হতে পারে? এখন অনেক কিছুই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। এই দাঁতটি মানুষের আদি ফ্যামিলি ট্রি থেকেই এসেছে। কাজেই এখন আরো ইতিহাস বেরিয়ে আসবে বলেই আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

আরো খবর »