নেই হিজাব, নেই বিভাজন, বদলে যাওয়া সৌদির স্বপ্ন

Feature Image

তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সৌদি আরবের যুবরাজ। গোটা বিশ্ব থেকে শিল্পপতিদের ডেকেছিলেন মহম্মদ বিন সলমন।
এক নতুন ভাবধারার সৌদি আরবের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তার সঙ্গে একটা অবিশ্বাস্য স্বপ্ন দেখিয়েছেন, নিওম। ২৫ হাজার বর্গ কিলোমিটারের একটা শহর, গোটা বিশ্বের প্রযুক্তি গবেষণার রাজধানী, সামাজিক বিধিনিষেধ থেকে মুক্ত, ট্র্যাফিক মুক্ত, পুরোপুরি অপ্রচলিত শক্তিচালিত। সালমানের কথায়, নিওম হবে ভবিষ্যৎ পৃথিবীর স্বপ্নদ্রষ্টাদের শহর। গোটা বিশ্বকে সে সম্পর্কে একটা ধারণা দিতে কিছু প্রোমোশনাল ভিডিও প্রকাশ করেছে সৌদি আরব। ইউটিউবে ঝড় তুলে দিয়েছে নিওম-এর সেই সব ভিডিও। সৌদি আরবের মতো রক্ষণশীল দেশেও এই রকম ভাবনা সম্ভব! ভিডিও দেখে এ ভাবেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে।

আধুনিক জীবন বা আধুনিক পৃথিবী নয়, নিওম শহরে উত্তর-আধুনিক পৃথিবীর স্বপ্ন দেখাচ্ছেন মহম্মদ বিন সলমন। প্রোমোশনাল ভিডিওয় সৌদি আরবের প্রতিশ্রুতি, নো রেস্ট্রিকশন, নো ডিভিশন, নো এক্সকিউজেস, এন্ডলেস পোটেনশিয়ালস।

অর্থাৎ, কোনও বিধিনিষেধ নয়, কোনও বিভাজন নয়, কোনও অজুহাতও নয়। শুধু সীমাহীন সম্ভাবনার শহর হতে চলেছে নিওম। হিজাবহীন মহিলাদের দেখা যাচ্ছে ভিডিওয়, স্পোর্টস ব্রা পরে শরীরচর্চা করতে দেখা যাচ্ছে, পুরুষের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সব রকমের কাজে অংশগ্রহণ করতে দেখা যাচ্ছে নারীকে।

রক্ষণশীল ইসলাম থেকে উদার ইসলামের দিকে যাত্রা করতে চায় সৌদি আরব। জানিয়েছেন সলমন। তিনি বলেছেন, অতীতে আমরা এই রকম (রক্ষণশীল) ছিলাম না। তিনি আরও বলেছেন, আমরা যেখানে ছিলাম, আমরা ফের সেখানেই ফিরতে চাই, উদার ইসলামে ফিরতে চাই।

আজকের পৃথিবী সৌদি আরবকে চূড়ান্ত রক্ষণশীল দেশ হিসেবেই চেনে। পুরুষতান্ত্রিক ব্যবস্থা সেখানে এতই শক্তিশালী যে মাসখানেক আগে পর্যন্তও সে দেশে গাড়ি চালানোর অধিকার ছিল না মেয়েদের। আজও সে দেশে উদয়াস্ত হিজাবে ঢাকা থাকেন মেয়েরা, আজও বিয়ে করতে হয় শুধুমাত্র পুরুষ অভিভাবকের নির্বাচিত পাত্রকেই। কঠোর ধর্মীয় অনুশাসনের দেশটিতে পুরুষদেরও অনেক বিধিনিষেধের মধ্যেই থাকতে হয়। বিদেশ থেকে যে সব পর্যটক যান সে দেশে, অবশ্য পালনীয় নির্দেশিকা রয়েছে তাঁদের জন্যও। তেমন এক দেশে নিওম-এর মতো উত্তর-আধুনিক শহর গড়তে চান যুবরাজ সলমন। যেখানে কোনও বিধিনিষেধ বা বিভাজন থাকবে না বলে রিয়াধ আশ্বাস দিচ্ছে।

শিল্পপতিদের জমায়েতে যুবরাজ সলমন জানিয়েছেন, তেল নির্ভরতা থেকে ক্রমশ অপ্রচলিত শক্তির দিকে সরতে চাইছে সৌদি আরব। সৌদি অর্থনীতির পেট্রোলিয়াম নির্ভরশীলতাও কিছুটা কমাতে চান সলমন। সব মিলিয়েই নিওম সুপারসিটির ভাবনা। গোটা বিশ্বের প্রযুক্তি গবেষণার রাজধানী হিসেবে নিওমকে গড়ে তুলতে চাইছে সৌদি আরব। ৫০ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ ধরা হয়েছে। সরকারি বিনিয়োগ থাকবে। বেসরকারি তথা আন্তর্জাতিক বিনিয়োগও চাওয়া হচ্ছে। সেই কারণেই বিধিনিষেধ মুক্ত উত্তর আধুনিক এক সমাজের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে। সলমনের কথায়, এই শহরটা প্রথাগত মানুষ বা প্রথাগত সংস্থাগুলির জন্য নয়। মানবসভ্যতাকে পরবর্তী ধাপে পৌঁছে দেওয়ার স্বপ্ন দেখেন যাঁরা, তাঁদের জন্যই নিওম-কে গড়ে তুলতে চলেছে সৌদি আরব, জানিয়েছেন যুবরাজ।

আরো খবর »