পুতিনের সম্পদের গোপন দুনিয়া!

Feature Image

বিশ্বে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। যেমন ক্ষমতাধর তেমন তার সম্পদের পরিমাণও।
তবে তার বেশিরভাগই ঘনিষ্টজনদের নামে। আর তার সম্পদের গোপন দুনিয়া নিয়ে সম্প্রতি একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

 

যেখানে পুতিনের সম্পদের পরিমাণ আনুমানিক ২৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার! (বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ১ লাখ ৯৯ হাজার কোটি টাকা)। আর এ সম্পদের অধিকাংশই রাখা হয়েছে তাঁর ঘনিষ্ঠজনদের হেফাজতে।

রাশিয়ার দৈনিক নোভায়া গ্যাজেটা এবং অনুসন্ধানী সংগঠন অর্গানাইজড ক্রাইম অ্যান্ড করাপশন রিপোর্টিং প্রজেক্ট (ওসিসিআরপি) যৌথভাবে এই অনুসন্ধানটি চালিয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, পূর্ব ইউরোপ, ককেশাস, মধ্য এশিয়া ও মধ্য আমেরিকার অনুসন্ধানী কেন্দ্র, সংবাদমাধ্যম ও সাংবাদিকদের সংঘ হলো ওসিসিআরপি। যদিও প্রকাশিত অনুসন্ধানী এ প্রতিবেদন বেশ একটা আলোড়ন যে তুলতে পেরেছে তা কিন্তু নয়।

কারণ দাপ্তরিক হিসাব অনুযায়ী ২০১৬ সালে রুশ প্রেসিডেন্টের আয় ছিলো ১ লাখ ৩৩ হাজার মার্কিন ডলার। কানাঘুষা রয়েছে, ভ্লাদিমির পুতিন পৃথিবীর শীর্ষ ধনীদের মধ্যে অন্যতম। যদিও দাবিটি কোনোভাবেই মেনে নেন না প্রেসিডেন্ট।

 

ওই প্রতিবেদনটিতে দাবি করা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট পুতিনের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠজনদের কয়েকজন ‘তাঁদের গুপ্ত সম্পদের সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা’ দিতে পারেননি। তাই অনুসন্ধান চালানো প্রতিষ্ঠান দুটি মনে করছে তাঁদের (ঘনিষ্ঠজনদের) কাছে থাকা এসব সম্পদ সম্ভবত পুতিনেরই।

 

এরকম একজন ঘনিষ্ঠজন হচ্ছেন মিখাইল শেলোমভ। যার বার্ষিক ৮ হাজার ৫০০ ডলারের বেশি নয়। কিন্তু তাঁর ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণ ৫৭ কোটি ৩০ লাখ ডলার। পুতিনের বাল্যবন্ধু একসময়ের মাংস বিক্রেতা পিওত্র কলবিনের ব্যক্তিগত সম্পদের পরিমাণ ৫৫ কোটি ডলার। কলবিনের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তবে শেলোমভ এতটাই অপরিচিত মুখ যে তাঁর ছবিটাও উদ্ধার করা যায়নি।

আরো খবর »