জোর করে চুল রঙ, অতঃপর ছাত্রীর মামলা

Feature Image

স্কুলে একাধিকবার চুল রঙ করতে বাধ্য করায় লোকাল গভর্নমেন্টের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন জাপানের এক ছাত্রী। জানা যায়, ওই ছাত্রীর চুল প্রাকৃতিকভাবেই বাদামি রঙের।
কিন্তু তার চুলগুলোকে কালো রঙ করতে বাধ্য করতো স্কুল কর্তৃপক্ষ। যদি রঙ না করে, তাহলে স্কুলের নিয়ম অমান্য করার অপরাধে স্কুল থেকে তাকে বের করে দেয়া হবে বলেও বলা হয়। ফলে একাধিকবার ক্ষতিকর রঙ ব্যবহার করার কারণে মেয়েটির চুল এবং মাথার ত্বকের ক্ষতি হয়েছে। খবর-বিবিসি’র।

ওই ছাত্রীর কাইফুকান হাই স্কুলের নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা রঙ কিংবা ব্লিচ ব্যবহার করে কালো রঙ পরিবর্তন করতে পারবে না। সেজন্যই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তবে মেয়েটির মা স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন যে, মেয়েটির চুল রঙ করা নয় বরং প্রাকৃতিকভাবেই বাদামী। কিন্তু তার পরেও স্কুল কর্তৃপক্ষ মেয়েটিকে জোর করছিলেন তার চুল রঙ করে কালো করার জন্য।

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাস থেকে মেয়েটি স্কুলে যায়নি।
ক্ষতিপূরণ হিসেবে মেয়েটি ১৯৩০০ ডলার দাবি করেছে। কাইফুকান হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাসাহিকো তাকাহাশি এই বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেননি।

জাপানের অধিকাংশ স্কুলেই চুলের রঙ, মেকআপ কিংবা স্কার্ট কতটুকু লম্বা সেই বিষয়ে অনেক কড়া নজর রাখা হয়। একটি সংবাদপত্রের জরিপে দেখা গিয়েছিল যে ৬০ শতাংশ হাই স্কুলেই প্রাকৃতিকভাবে হালকা রঙ এর চুল যাদের, তাদেরকে প্রমাণ দিতে হয়েছে যে তারা চুল রঙ করেনি। প্রমাণ হিসেবে ছোট বেলার ছবি জমা দিতে হয়েছে তাদেরকে।

আরো খবর »