‘হামলার নেপথ্য নায়ক কাদের’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেছেন, দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নেপথ্য নায়ক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তিনি এই কাজ করেছেন।

খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা বিএনপির অন্তঃকোন্দল বলে আওয়ামী লীগ নেতারা গতকাল শনিবার মন্তব্য করেন। আজ রোববার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন করেন।

বিএনপির নেত্রী বিশৃঙ্খলা তৈরির জন্য সড়ক পথে কক্সবাজার রওনা হয়েছেন, আওয়ামী লীগ নেতাদের এ মন্তব্যের বিষয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সড়ক পথ সবচেয়ে নিরাপদ পথ। সড়ক পথে ওবায়দুল কাদের সাহেবরা যান না? তাঁর নেত্রী যান না? হাজার হাজার দৃষ্টান্ত আছে। আজকে এই কথা আসে কেন? প্রধানমন্ত্রী যখন বিদেশ থেকে আসেন, তখন জোরজবরদস্তি করে স্কুল-কলেজ ছুটি দিয়ে; রাস্তাঘাট বন্ধ করে ভোগান্তি তৈরি করেন। তখন তো আওয়ামী লীগ বুদ্ধিজীবীরা কিছু বলেন না। তিনি বলেন, পথ দিয়েই মানুষ যায়। খাল-বিল দিয়ে তো মানুষ যায় না। সড়ক পথ দিয়ে তিনি (খালেদা জিয়া) যাবেন এটাই তো স্বাভাবিক। এগুলো বিভ্রান্তি ছড়ানোর উপায় ছাড়া কিছু নয়।

আওয়ামী লীগকে ‘গভীর ষড়যন্ত্রকারী’ উল্লেখ করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘জনদৃষ্টিকে অন্য দিকে সরানোর জন্য এসব (সড়ক পথ) কথা বলা হচ্ছে। এটা একেবারেই বিভ্রান্তিকর, অপপ্রচারমূলক এবং এরা হচ্ছে গভীর ষড়যন্ত্রকারী। গোটা দেশকে তারা ভয়ংকর ষড়যন্ত্রের মধ্যে ফেলেছে।’ তিনি বলেন, মিয়ানমারে হাজার হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে এ দেশে এসেছে, অথচ সরকার মিয়ানমারের কাছে কোনো প্রতিবাদ করতে পারেনি। সেখানে সরকার একটি ‘হুমকি’ দিতে পারেনি। উল্টো মিয়ানমারের কাছে চাল চাইতে যায়। যে সরকার অন্য দেশের কাছে নতজানু, সেই ধরনের কাপুরুষোচিত সরকারই নিজ দেশের বিরোধী দল, গণমাধ্যমের ওপর ‘সন্ত্রাসী’ হামলা করে।

রুহুল কবির রিজভী করেন, সরকার বর্তমানে পুরোপুরি জনবিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে দিগ্‌বিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে ভালো ও মন্দের মধ্যে তফাত অনুধাবন করতে পারছে না। ফলে সন্ত্রাস সৃষ্টিকেই নিজেদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার ভালো উপায় হিসেবে গণ্য করছে। গতকাল খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলা চালিয়ে ইতিহাসে আওয়ামী লীগ আবারও গণধিকৃত রাজনৈতিক দল হিসেবে চিহ্নিত হলো।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »