মিয়ানমার হয়ে বাংলাদেশে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদল

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে আলোচনার জন্য মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সফরে প্রতিনিধিদল পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যা, শরণার্থী ও অভিবাসনবিষয়ক ভারপ্রাপ্ত সহকারী মন্ত্রী সায়মন হেনশোর নেতৃত্বে আসা ওই প্রতিনিধিদল বর্তমানে মিয়ানমারে অবস্থান করছে।

২৯ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিনিধিদলটি মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সফর করবে।

প্রতিনিধিদলে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও শ্রমবিষয়ক ব্যুরোর ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি স্কট বাসবি, দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক ব্যুরোর ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি টম ভাজদা এবং পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলবিষয়ক ব্যুরোর অফিস ডাইরেক্টর প্যাট্রিসিয়া মাহোনি।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন মিয়ানমারের সেনাপ্রধানকে ফোন করে রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের পাশাপাশি পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন বিষয়ে কথা বলার পরেই ওই প্রতিনিধিদল পাঠাল যুক্তরাষ্ট্র।

প্রতিনিধিদল রাখাইনে সহিংসতায় যে মানবিক সংকট ও মানবাধিকার নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে তা মোকাবেলা এবং মিয়ানমার, বাংলাদেশ ও এই অঞ্চলে বাস্তুচ্যুতদের মানবিক সহায়তা বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা করবেন।

এদিকে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সরেজমিন দেখতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবিকবিষয়ক কমিশনার ক্রিস্টোস স্টাইলিয়ানিডস ৩ দিনের সফরে আজ ঢাকায় আসছেন। এ ছাড়া পোপ ফ্রান্সিসের আসন্ন মিয়ানমার ও বাংলাদেশ সফর এবং মিয়ানমারে আসন্ন এশিয়া-ইউরোপ মিটিংয়ের (আসেম) মাধ্যমে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত ২৫ আগস্ট থেকে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযান শুরু হওয়ার পর নতুন করে এ পর্যন্ত ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। রোহিঙ্গাদের গ্রামগুলোতে নির্বিচারে হত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট, অগ্নিসংযোগের কথা জানিয়েছেন তারা।

রোহিঙ্গাদের ওপর পরিচালিত এ বর্বরতাকে জাতিসংঘ ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »