পাঠ্যসূচির পুস্তকের পাশাপাশি সহায়ক পাঠ্যপুস্তক শিশুদের বুদ্ধি বিকাশে গুরত্বপূর্ণ

Feature Image

 

আজ সকালে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি থানার বুজরুক দুর্গাপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাদা মনের আলোকিত মানুষ কয়ার নাসির মাস্টারের নিজ উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভিন্ন রকম সহপাঠ্যপুস্তক হাতে তুলে দেলে তারা সবাই পড়তে থাকে। শিশুতোষ বই ছাড়াও সাধারণ জ্ঞান, নানাপদের ছড়ার বই মিলে কমপক্ষে একশ ছেলে মেয়েরা বই হাতে পেয়ে খূশির সাথে পড়তে থাকে।

 

বইপড়া এ অনুষ্ঠান উব্দোধন করেন কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শাহীনুজ্জামান। বিদ্যালয়েল প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীরা উপস্থিত থকে এ মহতি পাঠানুষ্ঠান পর্যবেক্ষন করেন। আরো উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক লিটন আব্বাস, সাংবাদিক হুমায়ুন কবির, মো: আতাউর রহমান সুজন, দীপু মলিক প্রমুখ।

প্রধান অতিথি শাহীনুজ্জামান বলেন, বইপড়লে জ্ঞানের আলো পরিব্যাপ্ত ও পরিব্রত হয় সাথে সাথে মননশীলতারও উন্শেম ঘটে। শিক্ষার্থীদের ছাত্রাবস্থায় পড়ার বই পাঠের সাথে সাথে এইরকম সহপাট্য পুস্তক বেশি বেশি অধ্যয়ণ করলে মিশূর মনোবৃত্তির বিকাশ দ্রুত ঘটতে থাকে এবং তার মধ্যে সৃজনশীল মানসিকতার পরিচয় মেলে এবং সে চিন্তা করতে শেখে, যা সে করে তা বিবেকবোধ দিয়ে ফলে রাষ্ট্র ও জাতির উপকৃত হয়।

সাহিত্যিক লিটন আব্বাস বলেন, পাঠ্যপুস্তকের পাশাপাশি শিশুদের মনোবিকাশ ও স্বোপার্জিত অনুভূতিতে সহায়ক পুস্তক অনেক বেশি গুরুত্ব বহন করে। নাসির স্যারের এই কার্যকম মহতি ও শিক্ষার মান্নোয়নে বেশ ভূমিকা রাখে।
সুতরাং আ্উটস্ট্যান্ডিং এচিভমেন্টের জন্য এইরকম কার্যক্রম আনাচে-কানাচে সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়া দরকার।

আরো খবর »