ফয়সাল হাবিব সানি’র কবিতা `হৃদয়ে তুমি পড়ে অাছো’

Feature Image

 

তোমাকে অামি অামার হৃদয় ভেবেছি
একবার তুমি সেখানে তাকিয়ে দেখো-
দেখবে অনাদিকাল থেকে শুধু তুমি পড়ে অাছো,
অামি সেই `তুমি’কে বুকে ভরে হাসতে হাসতে নির্বিঘ্নে বয়ে বেড়াচ্ছি অামার প্রেমের মতো…
তুমি যেন অামার প্রেমের মতো গাঢ় অার বেদনার মতো প্রগাঢ়; হৃদয়ের মতো নিঃসীম প্রদাহ!
একবার তুমি প্রেমকে বিশ্বাস করো-
পাঠ করো এ হৃদয়ের প্রতিটা অক্ষর,
শুনতে পাবে শুধু তোমার নাম-
সেখানে তুমি পড়ে অাছো;
একবার অন্তত তুমি অামার হৃদয়ে তাকাও-
সেখানে শুধু তুমি অার তুমি বসে অাছো,
একবার তুমি অামার ওই চোখের দিকে তাকাও-
চোখ রেখে একবার তুমি মুখ ফুঁটে বলো, `ভালোবাসি না’?

অামি জানি, বলতে যেয়ে তোমার ঠোঁট ভীষণ কেঁপে উঠবে! তুমি মুখ লুকোবে লজ্জায়;
কারণ তোমার চোখ ততোক্ষণে অামার চোখের ভেতর ঢুকে গেছে!
একবার শুধু স্পর্শ করো অামায় তোমার কোমল করতলে-
দেখবে তুমি শিউরে উঠবে! শরীরজুড়ে ভীষণ কাঁপন উঠবে তোমার;
মুহূর্তেই অামার থেকে দূরে ছিটকে পড়বে তুমি…
কিন্তু ততোক্ষণে অামার বুক তোমায় বুকে টেনে নেবে প্রবল উৎসাহে-
বলোতো, কোথায় যাবে তুমি?

এই যে দেখছো হাঁড়, মাংস, চামড়া
অার গভীরে দেখছো হৃৎপিণ্ড;
সবকিছু বলেছে অামায়, দিয়েছে সাক্ষ্য-
ওদের ভেতরও নাকি তুমি মিশে অাছো!
অামার পাঁজরের রক্ত ঝরতে ঝরতে বলেছে,
সেখানেও নাকি তুমি খেলা করো, খেলতে খেলতে অামায় তুমুল পাগল করে তোলো-
অারক্ত রক্তে তোমার এ উত্তেজনা অামায় কি রকম মাতাল করে তোলে!
একবার শুধু তুমি `অামি’ হয়ে যাও-
অামরা দু’জন অভিন্ন হয়ে যাব চোখ থেকে চোখে, ঠোঁট থেকে ঠোঁটে, মুখ থেকে মুখে, হৃদয় থেকে হৃদয়ে, শরীর থেকে শরীরে, ভেতর থেকে ভেতরে- বৃন্ত থেকে দু’জনে না হয় ফুটব সদ্য যৌবনপ্রাপ্ত একটি লাল গোলাপের মতো
অামাদের হৃদয় থেকে পৃথিবীর সমস্ত হৃদয়ে ছড়িয়ে পড়বে অমৃত তৃষা…
একবার শুধু অামার হৃদয়ে হাত দাও-
সেখানে তোমার অস্তিত্ব শুয়ে থাকে, সেখানে তুমি পড়ে অাছো;
অামি অনাদিকাল থেকে বিদীর্ণ দাহে প্রেমের মতো পুঁষেছি তোমাকে!

আরো খবর »