নৌকাডুবির পর অবশেষে পরীক্ষা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি,স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: জেলার নবীনগর উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নের বীরগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা আজ বৃহস্পতিবার সকালে নৌকায় করে কৃষ্ণনগরে পরীক্ষাকেন্দ্র পৌঁছেছে। তাঁরা অনেকটাই স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গে পরীক্ষা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বীরগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক নাজির হোসেন।

গতকাল বুধবার উপজেলার পাগলা নদীতে বীরগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজের দেড় শতাধিক জেএসসি পরীক্ষার্থী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। নৌকাডুবির কারণে গতকাল ১৬ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষাকেন্দ্রে অনুপস্থিত ছিল। তবে আজ অনুপস্থিত থাকা ১৬ জনের অনেকেই পরীক্ষা দিচ্ছে বলে কৃষ্ণনগর আবদুল জব্বার উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্রসচিব ফেরদাউসুর রহমান নিশ্চিত করেছেন। তবে ১৬ জনের ঠিক কতজন আজ পরীক্ষা দিচ্ছে, সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নবীনগর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সালেহীন তানভীর গাজীসহ উপজেলা প্রশাসনের অনেকেই পরীক্ষা কেন্দ্রে অবস্থান করছেন। বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বীরগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য উপজেলা প্রশাসন থেকে তিনটি নৌকা দেওয়া হয়েছে। এই নৌকায় করে আজ শিক্ষার্থীরা উপজেলা থানাকান্দি থেকে কৃষ্ণনগর নদীঘাটে পৌঁছায়। অনেক শিক্ষার্থী হেঁটেও পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছেছে।

এদিকে জেলা প্রশাসনের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা হয়েছে। বীরগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক নাজির হোসেন প্রথম আলোকে জানান, গতকাল অনুপস্থিত তাকা অনেক শিক্ষার্থী আজ পরীক্ষা দিতে গেছে। তাদের মানসিক অবস্থা অনেকটাই ভালো বলে তিনি দাবি করেন।

নিহত দুই শিক্ষার্থী নাদিরা আক্তার ও সোনিয়া আক্তারের পরিবারকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »