যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে খুঁটিতে বেঁধে নির্যাতন

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঠাকুরগাঁও: জেলার সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের হাজীপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে আঞ্জুয়ারা বেগম (৩১) নামে এক গৃহবধূকে খাটের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে।

ঘরের দরজা বন্ধ করে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন তাকে বেধড়ক মারধর করেন। এতে তার মাথা ফেটেছে, ডান হাত ভেঙে গেছে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

শনিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিকিৎসক এ কথা বলেন। আঞ্জুয়ারা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের হাজীপাড়ার আবদুস সাত্তারের স্ত্রী এবং ঠাকুরগাঁও শহরের ফকিরপাড়া এলাকার আনোয়ার হোসেনের মেয়ে।

আঞ্জুয়ারা জানান, গত বছরের অক্টোবর মাসে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের হাজীপাড়ার মো. জবান আলীর ছেলে আবদুস সাত্তারের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে প্রায়ই স্বামীসহ তার পরিবারের লোকেরা তাকে মারধর করতেন। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবিতে স্বামীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয় আঞ্জুয়ারার।

সে সময় তার স্বামী আবদুস সাত্তার, শ্বশুর জবান আলী, শাশুড়ি সবুরা বেগমসহ ওই পরিবারের লোকজন ঘরের দরজা বন্ধ করে বাঁশের লাঠি দিয়ে আঞ্জুয়ারাকে বেধড়ক মারধর করেন। এমনকি তারা আঞ্জুয়ারাকে খাটের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »