যে ভুলগুলো স্বপ্নপূরণে বাধার কারণ!

Feature Image

অল্প বয়সে আনন্দ-ফূর্তির মাঝে জীবনটাকে উপভোগ করতে চাই সকলেই। তবে এ সময়ের কিছু ছোটখাট ভুল বাধা হয়ে যায় উন্নতি বা স্বপ্নপূরণে।
বয়স ৩০ পেরোলেই আস্তে আস্তে বুঝতে পারি ভুলগুলো। আরও জেনে নিন-

ফোনের পিছনে অতিরিক্ত সময়:
ফোনে কথা বলা, স্মার্টফোনে চ্যাট, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক করে কতটা সময় নষ্ট করেছি আমরা, তা কী ভেবে দেখি? তাছাড়া অল্প বয়সে আমরা নিজেদের নিয়ে এতটাই মশগুল থাকি যে অন্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করি না। অনেক সময় কে আমার জন্য কী করছে তা বুঝতেও পারি না।

সময়ের চেয়ে টাকার মূল্য বেশি:
অল্প বয়সে আমরা অনেকেই টাকার পিছনে ছুটতে গিয়ে পরিবার, বন্ধু, কাছের মানুষদের সময় দেই না। পরে বুঝতে পারি সময় কতটা মূল্যবান।

সকলকে খুশি করার চেষ্টা:
কে আমাকে নিয়ে কী ভাবছে অল্প বয়সে সেই চিন্তা মাথায় ঘুরতে থাকে। সকলকে খুশি করার চেষ্টা করি আমরা। পরে বুঝতে পারি চেষ্টাটাই বৃথা।

খারাপ স্মৃতি:
জীবনে ওঠা-নামা আসবেই।
খারাপ সময় থেকে এগিয়ে যেতে হয়। কিন্তু অল্প বয়সে আমরা খারাপ স্মৃতি, ব্রেক-আপ নিয়েই আঁকড়ে বসে থাকি।

অযথা জটিলতা:
জীবনকে সহজ ভাবে না নিয়ে একগাদা জিনিস নিয়ে এসে জটিলতা, খরচ বাড়াই। এর বেশির ভাগই অপ্রয়োজনীয়।
সব প্ল্যান কাজ করবে: আমরা ভাবি নিজেদের সব প্ল্যান কাজ করবে। কিন্তু জীবন নিজের মতো চলে। যখনই নিজেদের পরিকল্পনা, প্রত্যাশা আনুযায়ী কিছু হয় না তখনই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে।

সব কিছুতে আবেগ:
যে কোন সমস্যাতেই আমরা আবেগের সঙ্গে জড়িয়ে পড। ফলে সমস্যার সমাধান খোঁজার থেকে বেশি চিন্তিত হয়ে পড়ি। অথচ সেই সমস্যা হয়তো মাত্র ১০ দিন স্থায়ী হয়।

শোনা ও বোঝা:
অন্যরা কী বলছে যা মন দিয়ে না শুনে, না বুঝে শুধু উত্তর দেওয়ার জন্য আমরা কথা বলি। অথচ নিজের গুরুত্ব বাড়াতে গেলে অন্যদের কথা শোনা প্রয়োজন। বলতে গেলে বোঝা দরকার। একটার পর একটা ইচ্ছা, লক্ষ্য, স্বপ্ন পূরণের দিকে ছুটতে গিয়ে জীবনের মুহূর্তগুলো উপভোগ করতে ভুলে যাই। অথচ এই ছোট ছোট মূল্যবান মুহূর্ত নিয়েই তৈরি হয় জীবন। পরে সকলেই আফশোষ করি।

আরো খবর »