নদী থেকে বালি উত্তোলন: বিলীন হচ্ছে কৃষিভূমি হুমকির মুখে বসত ভিটা

Feature Image

কু্ষ্টিয়াঃ  কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার তালবাড়িয়া ইউনিয়নের রানাখড়িয়া পদ্মা নদীর পাড়ের কৃষি জমি বিলীন হতে চলেছে। হুমকির মুখে বসবাস করছে হঠাৎ পাড়ার স্থানীয় জনসাধারণ। স্বরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, ভেড়ামারা উপজেলার বাহির চরে ড্রেজার লাগিয়ে বালি উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী মহল। সেখান থেকে বড় বালির নৌকা প্রতি ৪-৫হাজার টাকা দিয়ে এই বালি ক্রয় করে রানাখড়িয়া ঘাটে নিয়ে এসে ড্রেজারের মাধ্যমে উত্তোলন করে এই বালি উপরে বালি ঘাটে গাদা করে রাখা হচ্ছে।

এই কারণে রানাখড়িয়া পদ্মা নদীর পাড় ভেঙ্গে বিলীন হচ্ছে এলাকার গরীব কৃষকদের চাষ করা আবাদি জমি। হুমকিতে রয়েছে হঠাৎ পাড়ার প্রায় শতাধিক পরিবার। যে কোন সময় বিলীন হতে পারে তাদের মাথা গোজার একমাত্র অবলম্বন।

নাম প্রকাশে অনিইচ্ছুক বেশ কয়েকজন জানান, প্রভাবশালী আওয়ামীলীগের নেতারা বাহির চরে জোরপূর্বক চড় দখল করে মোটা বালি ড্রেজার মেশিন দিয়ে উত্তোলন করছে। প্রতিদিন সেই বালি বোঝাই ১শ-দেড় শত বালির নৌকা সেই বালি বঝাই করে নিয়ে আসছে রানাখড়িয়া বালি ঘাটে। এখানে এই সমস্ত নৌকার বালি আনলোড করতে ব্যবহার করা হচ্ছে আনলোডার মেশিন। এই কারণে পাড় ভাঙ্গতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে এই কারণে নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে কৃষি ও আবাদি জমি।

এব্যাপারে মিরপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার এস এম জামাল এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, যে কর্মকাণ্ডে জনগণের ক্ষতি সাধিত হবে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্বরেজমিনে রানাখড়িয়া বালির ঘাট এলাকা তদন্ত করে এই বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মসলেমপুর বাহির চর একটি প্রভাবশালী কু-চক্রী মহল প্রতিদিন ৬-৭লক্ষ টাকার বালি বিক্রয় করছে। এই বালিই রানাখড়িয়া ঘাটে আসার কারণেই এই ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বিলীন হয়ে পড়ছে নদী পাড়ের ব্যাক্তি মালিকাধীন অনেক কৃষি জমি। এব্যাপারে তালবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান হান্নান মণ্ডল বলেন, বালি উত্তোলনের জন্যে নদী ভাঙ্গছে না এমনিতেই নদী ভাঙ্গছে। আজ দীর্ঘ ২০ বছর এই নদী এখানে ভাঙ্গন চলছে। আমি কুষ্টিয়া-৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম হানিফের কাছে এই নদী ভাঙ্গনের প্রতিকারের জন্যে নদীর পাড় বাধার আবেদন জানিয়েছিলাম। সরকার এই বাধ সংস্কার কাজের বরাদ্ধ দিয়েছেন সু-যোগ্য এমপি মাহাবুব-উল-আলম হানিফ সাহেবের প্রচেষ্টায়। খুব দ্রুত এই কাজ শুরু হবে।

আরো খবর »