রাজশাহীর র্স্বনালী মুক্তমনীর রোগে ভুগছে- অসহায় বাবা, মা

Feature Image

রাজশাহী থেকে ওবায়দুল ইসলাম রবিঃ  মুক্তামণির মতো বিরল রোগে আক্রান্ত রাজশাহীর শিশু স্বর্ণালী। রাজশাহীর পবা উপজেলার বড়গাছি ইউনিয়নের টেগাটাপাড়া গ্রামের স্বর্ণালীর বাবা আবদুল মান্নান দূর্গাপুরের দাওকান্দি কলেজের পিওন ও মা রুমা বেগম গৃহীনি। স্বর্ণালী স্থানীয় নোনামাটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

জন্মের পর থেকে স্বর্ণালীর ডান হাতে কালো দাগ থেকে এ রোগের উৎপত্তি। বিরল এ রোগের কোনো চিকিৎসা নেই বলে পরিবারের লোকজন ডাক্তার দেখাননি। তবে পত্রপত্রিকায় মুক্তামণির রোগ ও চিকিৎসার নিয়ে খবর প্রকাশের পর তাদের মনে সাহস জেগেছে। এ রোগ ভালো হয়ে যেতে পারে এ আশায় তারা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েছেন। তবে তাদের পক্ষে অপারেশন বাবদ টাকা সংগ্র বা জোগার কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

স্বর্ণালীর মা রুমা জানান, চার বছরের র্স্বনালীকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মোয়াজ্জেম হোসেনকে দেখানো হয়েছিলো। সে সময় চিকিৎসক একটি মলম দিয়েছিলেন। সেটি লাগানো হলেও রোগ কমার কোনো লক্ষণ তারা খুজে পাননি। বরং ক্রমেই বাড়ছে।

রাজশাহীর ইসলামী ব্যাংক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক আফরোজা নাজনীনকে দেখান। তিনিও স্বর্ণালীর হাত দেখে বিরল রোগ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। অবশ্য এ ডাক্তার পরামর্শ দিয়েছেন পরীক্ষা নিরিক্ষার পর অপারেশনের। তবে টাকার বাজেটের কাছে পরাস্ত হয়েছেন বাবা-মা। এখন মেয়েকে নিয়ে চরম দুশ্চিন্তাায় দিন কাটছে তাদের। ভালো চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার সামর্থও নেই তাদের।

স্বর্ণালী জানায়, স্কুলে গেলে তারপাশে অন্যরা বসতে চায় না। তাকে দেখে সহপাঠিরা হাসাহাসি করে। এজন্য প্রায় তার স্কুলে যাওয়া হয় না। শিক্ষকরা তাকে ভালোবাসলেও ক্লাশে তার ভালোলাগে না নিজের অসুস্থ হাতের জন্য। তবে লেখা-পড়া করার ইচ্ছে তার আছে।

আরো খবর »