অনলাইন লেনদেনে যে ৮ বিষয়ে খেয়াল না রাখলে খুব বিপদ!

Feature Image

অনলাইন লেনদেনের জনপ্রিয়তা এবং পরিমাণ দুটোই বাড়ছে। বিভিন্ন ই-কমার্স সাইট থেকে কেনাকাটা তো বটেই, তার সঙ্গে কারও অ্যাকাউন্টে ফান্ড ট্রান্সফার করা, বিল মেটানোর মতো নিত্য প্রয়োজনীয় কাজও অনলাইনে করছেন বহু মানুষ।
জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে লোক ঠকানোর কারবারিরাও অপেক্ষায় থাকে, কখন আপনার সামান্য ভুলের সুযোগ নিয়ে কষ্টার্জিত টাকা চুরি করবে। তাই অনলাইন লেনদেনের সময় নীচের বিষয়গুলো মাথায় রাখলে অনেকাংশে বিপদ এড়ানো যাবে।

১) সাইবার ক্যাফে থেকে কখনও নয় : কোনও সাইবার ক্যাফে বা শেয়ার্ড কম্পিউটার যেখানে পাবলিক ওয়াই-ফাই সিস্টেম রয়েছে সেখান থেকে অনলাইন লেনদেন কখনও করবেন না।

২) বাড়ির কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থেকে লেনদেন : সব সময় বাড়ির ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থেকে লেনদেন করুন। এটা অনেক সুরক্ষিত। তবে খেয়াল রাখবেন, অ্যান্টিভাইরাস, ফায়ারওয়াল এবং অপরেটিং সিস্টেম যেন আপডেটেড থাকে।

৩) পাসওয়ার্ডে যেগুলো কখনও নয় : নিজের পাসওয়ার্ড ক্রিয়েট করার সময় মাথায় রাখবেন, আপনার জন্ম তারিখ, নাম বা নামের আদ্যাক্ষর, অ্যানিভার্সারির তারিখ কখনও ব্যবহার করবেন না। এগুলো সহজেই অনুমান করা সম্ভব।

৪) ই-মেইলে প্যান বা আধার নম্বর শেয়ার নয় : এমন কোনও ই-মেইলের প্রত্যুত্তর দেবেন না যেখানে আপনার প্যান বা আধার নম্বর চাওয়া হয়েছে।
মনে রাখবেন, কোনও সরকারি সংস্থা কখনও আপনার প্যান, ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের নম্বর, সিভিভি নম্বর ইত্যাদি জিজ্ঞাসা করে না।

৫) অজানা-অচেনা ব্যক্তির ইমেলের লিঙ্কে ক্লিক নয় : এমন বহু ইমেল হয়তো আপনি পান যেখানে কোনও লিঙ্কে ক্লিক করতে বলা হয়। মনে রাখবেন, অজানা কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান থেকে আসা মেলের মধ্যে থাকা লিঙ্কে ক্লিক করবেন না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সেগুলি স্প্যামওয়্যাল বা মেলওয়্যারের মতো ভাইরাস থাকে, যা নিমেষে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য এবং সেভ করা পাসওয়ার্ড চুরি করতে পারে।

৬) পাসওয়ার্ড শেয়ার নয়: সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ হোক বা ফোনে, কোনও ব্যক্তিকে নিজের কোনও অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড শেয়ার করবেন না। মনে রাখবেন, পাসওয়ার্ড আপনার ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্টের চাবি, যাতে অনেক ব্যক্তিগত তথ্য এবং কষ্টার্জিত টাকা থাকে।

৭) এসএসএল (SSL) চেক করুন: যে সাইট থেকে আপনি শপিং করছেন তা সুরক্ষিত তো? কীভাবে বুঝবেন? উপায় আছে। প্রথমেই লক্ষ্য করুন, অ্যাড্রেস বারে http-এর পর একটা s রয়েছে কিনা। এই s-এর অর্থ সাইটটি সুরক্ষিত। অর্থাৎ আপনি যদি কোনও লেনদেন করেন তবে আপনার তথ্য কোনোভাবে চুরি হবে না। দ্বিতীয়ত, অ্যাড্রেস বারের একদম বাঁ দিকে একটা তালার চিহ্ন থাকবে। এটাও একটা সুরক্ষিত সাইটের পরিচায়ক।

৮) অবৈধ লেনদেন হলেই ব্যাংককে জানান: অবৈধ কোনও লেনদেনের মেসেজ বা মেল পেলেই তৎক্ষণাৎ সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে জানান। এতে চুরি যাওয়া টাকা ফেরত পাওযার সম্ভাবনা খানিকটা হলেও থাকবে। তার সঙ্গে অবশ্যই পুলিশের সাইবার সেলের সাহায্য নিন।

আরো খবর »