রাতে মাশরাফির ঘরে এসে দুঃখপ্রকাশ শুভাশিসের

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ক্রীড়া ডেস্ক: দোষ শুভাশিসের। তারপরেও ঘটনার জন্য সরি বলেছেন মাশরাফি। ভক্তদের এ নিয়ে মোটেও বাড়াবাড়ি করার নিষেধ করেছেন। নিজের ভুল বুঝতে পেরেছেন পেসার শুভাশিস রায়ও। রাতে মাশরাফির রুমে গিয়ে ক্ষমা চেয়ে এসেছেন।

মাশরাফি নিজেও স্বীকার করেছেন সেটা। বলেছেন,‘ আরে এটা তো রাতেই মিটে গেছে। ও আমার রুমে এসেছিল। একসঙ্গে বসে অনেকক্ষণ আড্ডা দিয়েছি। খেলাধুলায় এসব ঘটে। এটাকে আপনারা বড় করে দেখছেন কেন?’

ওদিকে মাশরাফির কাছে ক্ষমা চেয়ে তৃপ্ত শুভাশিস। তিনি বলেন,‘ মাশরাফি বড় ভাই। যা হয়েছে সেটা বিব্রতকর। কিন্তু আমাদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। সব ঠিকঠাক আছে।’

বুধবার রাতে রংপুর রাইডার্স ও চট্টগ্রাম ভাইকিংস ম্যাচে একটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক পর্যায়ে মাশরাফির দিতে তেড়ে যান পেসার শুভাশিস। এ ঘটনা নিয়ে তোলপাড় সারা দেশ।

ঘটনাটি ঘটে ম্যাচের ১৭তম ওভারে। বল করতে আসেন পেসার শুভাশিস রায়। প্রথম দুই বলে ২ রান আসার পর ওভারের তৃতীয় বলে চার হাঁকান মাশরাফি। মাশরাফির কাছে মার খেয়ে বস্তুত ভিতরে ভিতরে কিছুটা মেজাজ হারান শুভাশিস।

মাশরাফি পরের বলের জন্য প্রস্তুত হবার আগেই ওভারের চতুর্থ বলটি করে ফেলেন শুভাশিষ। বলটি ছিল ইয়র্কার। অপ্রস্তুত মাশরাফি রক্ষণাত্মক খেলতে বাধ্য হন। বলটি ধরেই মাশরাফির দিকে অখেলোয়াড়সুলভ ভঙ্গিতে থ্রো করতে উদ্যত হন শুভাশিস। এমনিতে প্রস্তুত হবার আগে বল করে মাশরাফির মেজাজ কিছুটা বিগড়ে দেন। এরপর বাজে ভঙ্গিতে থ্রো করতে উদ্যত হলে প্রতিক্রিয়া দেখান মাশরাফিও। হাত দিয়ে বোলারকে নিজের বোলিংয়ে ফিরে যেতে ইশারা করেন। তখনই মাশরাফির দিকে গালমন্দ ছুড়ে তেড়ে যান ২৮ বছর বয়সী পেসার।

আশেপাশের ফিল্ডারদের চেষ্টায় শেষমেশ নিবৃত্ত হন শুভাশিস।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »