কালকিনিতে এক হতভাগার শেষ সম্বল কেরে নিতে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

মাদারীপুর থেকে ইকবাল হোসেন: জেলার কালকিনি উপজেলার গোপালপুর এলাকার ধজী গ্রামে আবদুল ছত্তার মাতুব্বর নামের এক ব্যক্তির শেষ সম্বল তার সহায় সম্পত্তি ষড়যন্ত্র করেকেরে নেয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। আর নিজের সম্পদ রক্ষা সহ ষড়যন্ত্রকারীদের হাত থেকে নিজের পরিবার পরিজনদের রক্ষার্থে সে ন্যায় বিচারের আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।

গ্রামবাসী ও ভূক্তভোগী আবদুল ছাত্তার মাতুব্বর জানায়, তিনি ছোট থাকতে তার পিতা আজাহার মাতুব্বর দ্বিতীয় বিয়ে করে। আর সৎ মা ঘরে আসলেই তার মা ফুলমন নেছাকে স্বামীর বাড়ি থেকে বিতারিত করা হয়। সেই সাথে শিশু আবদুল ছত্তারকেও বিতারিত করা হয়েছিল। শেষে হতভাগা আবদুল ছত্তার বিভিন্ন বাড়িতে থেকে এবং মসজিদে মসজিদে থেকে নিজের জীবন পার করেন। এরিমাঝে বিয়েতে আবদ্ধ হলে তার সংসারে ১০টি সন্তানের জন্মহয়। আর পরিবার পরিজন নিয়ে সে এক প্রকার অনাহারে অর্থাহরে দিনাতিপাত করে।

অপরদিকে তার পিতা তার সৎ ভাই আঃ গাফ্ধসঢ়;ফার সৎ বোন রাশিদা ও সৎ বোনের মেয়ে আকলিমাকে নিয়ে এক প্রকার বিলাসিতার জীবন জাবন করতে থাকে। আর সৎ ভাই বোন ও সৎ বোনের মেয়েকে নিজের ভাল এবং দামি জমি দান করা সহ জমি বিক্রি করে সেই টাকায় সংসার চালাতে থাকে। কিন্তু এক সময় অসহায় ছেলে আবদুল ছত্তার মাতুব্বরকে তার পিতা গত বছরের ৯সেপ্টেম্বর ধজী, পূর্ব মাইজপাড়া ও পূয়ালি মৌজায় পরিত্যক্ত ও ডোবা নালা দেখে এক একর ৫৫শতাংশ জমি হেবার ঘোষণা মতে দলিল করে দান করেন। কিন্তু এখবর তার সৎ ভাই সৎ বোন সহ বোনের মেয়ে জানতে পারলে তারা সেই জমি ফের দখলে নিতে নানা ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে শেষ বয়সে এসে পিতার থেকে কিছুটা হক প্রাপ্ত হলেও আবদুল ছত্তারের জীবন জীবীকা ফের অনিশ্চয়তার মুখে পতিত হয়েছে। তিনি তার হক পেতে প্রশাসন থেকে শুরু করে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »