প্রেমিককে ফিরে পেতে অপহরণের নাটক ফরাসি তরুণীর, অতঃপর…

Feature Image

নিজের অপহরণের মিথ্যা গল্প ফেঁদে অবশেষে পুলিশের জালেই জড়ালেন বছর পঁচিশের এক ফরাসি তরুণী। সাজা হিসেবে মিলল ছয় মাসের জেল এবং পাঁচ হাজার ইউরো মানে টাকার হিসেবে ৩ লক্ষ ৭৮ হাজার ৭৬৩ টাকা জরিমানা করেছে আদালত।
তবে এমন কাণ্ড করার পেছনের বয়ান শুনে রীতিমতো হতবাক পুলিশ প্রশাসন।

ঘটনাটি ঘটেছে ফ্রান্সের মেন্ডে শহরে। স্যান্ডি গিলার্ড নামে সেই তরুণী বিবাহ বিচ্ছেদের পর একই শহরেরই এক তরুণের প্রেমে পড়েন। তারা একই সঙ্গে থাকতেন। তবে বেশ কিছুদিন ধরেই সঙ্গীর সঙ্গে নানা সমস্যা চলছিল স্যান্ডির। হঠাৎই একদিন, তার বয়ফ্রেন্ডকে ম্যাসেজ করে জানান, তাকে অপহরণ করা হয়েছে। একটি কালো গাড়িতে তুলে আততায়ীরা তাকে কোনও একটি অ়জ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছে। ঘটনাটি পুলিশকে সঙ্গে সঙ্গেই জানান সেই তরুণ।

এর পরের ঘটনা আরও চমকপ্রদ।
তরুণীকে খুঁজে পেতে পুলিশকে বেশ বেগ পেতে হয়। শেষে ৫০ জনের একটি সেনা দল মোতায়েন করা হয়। হেলিকপ্টারে চেপে গোটা এলাকা তল্লাশি চালায় সেনা। খোঁজ চালানো হয় আশপাশের শহরগুলিতেও। শেষে রহস্যের সমাধান করেন স্যান্ডি নিজেই। প্রকাশ্যে এসে তিনি জানান, অপহরণকারীরা তাকে ছেড়ে দিয়েছে। তাঁর কথায় অসঙ্গতি থাকায় সন্দেহ হয় পুলিশের। স্যান্ডিকে গ্রেফতার করে করে পুলিশ।

এরপর পুলিশি জেরায় নিজের অপরাধ স্বীকার করেন তরণী। তিনি জানান, বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ঝামেলার কারণে তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে গিয়েছিল। ফের একসঙ্গে থাকবেন বলেই এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার স্যান্ডিকে ফরাসী আদালতে তোলা হয়। এই মিথ্যা নাটক এবং পুলিশ প্রশাসনকে নাজেহাল করার অপরাধে তাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

আরো খবর »