রংপুরে হিন্দুপাড়ায় সংঘর্ষ-অগ্নিসংযোগ ঘটনায় আটক ৩৩

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

রংপুর: ফেসবুকে ধর্মীয় অবমাননাকর ছবি ও স্ট্যাটাস দেওয়ার অভিযোগে রংপুরে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন ও ভাঙচুর এবং পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ ঘটনায় ৩৩ জনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। শুক্রবার বিকালে ওই ঘটনার পর রাতভর অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এদিকে, সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া গ্রামে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন ও ভাঙচুরের ঘটনায় সেখানে বসবাসরত শতাধিক হিন্দু পরিবারের মাঝে এখনও আতঙ্ক বিরাজ করছে। আবারও আগুন দেওয়া হতে পারে এমন আশঙ্কায় তারা না ঘুমিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রাত্রীযাপন করেছেন বলে জানিয়েছেন হিন্দু পরিবারের সদস্যরা। তবে আবার যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয় এজন্য ওই এলাকায় শতাধিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে, সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু পরিবারগুলোরকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে তিন হাজার টাকা, শুকনা খাবার ও দুই বান্ডেল করে ঢেউ টিন দেওয়া হবে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু পরিবারগুলোর বাড়ি-ঘর নির্মাণে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

এর আগে, শুক্রবার বিকালে হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে আগুন ও পরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে রাবার বুলেট বিদ্ধ হয়ে একজন নিহত হন। সাত পুলিশসহ আহত হন ৩০ জন। বিক্ষোভকারীরা নয়টি হিন্দু বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে।

আগুনে ১৮টি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। শটগান ও রাবার বুলেটবিদ্ধ ১১ বিক্ষোভকারীকে  রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে মাহবুব (২৫), জামিল (২৬), হাবিবুর রহমান (৩০), আলিম (৩২), জাহাঙ্গীর (২৮), আমিন (২৬) ও রিপনের (২৮) অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদের পেটে ও মাথায় বুলেট বিদ্ধ হয়। অন্যদের পায়ে ও হাতে রাবার বুলেট বিদ্ধ হয়।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »