লেবুর শরবতের ১৬ গুণ

Feature Image

নিউজ ডেস্কঃ পেকটিন ফাইবার, এন্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রপার্টিজ ও আয়রণ ও ভিটামিন এ। তাই প্রতিদিন সকালে ১ গ্লাস হালকা গরম পানি লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন। সুস্থ ও সুন্দর থাকুন। এবার জেনে নিন লেবুর শরবতের স্বাস্থ্য বেনিফিটগুলো।

এক: লেবুর রসে ভিটামিন ‘সি’ ও দরকারি উপাদান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

দুই: লেবুর পেকটিন ফাইবার বা আঁশ অন্ত্রনালী বা কোলনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা করে এবং শক্তিশালী জীবাণুনাশক হিসাবে কাজ করে।

তিন: লেবুর রস শরীরের পিএইচ লেভেল-এর মধ্যে সামঞ্জস্যতা বজায় রাখে।

চার:প্রতিদিন সকালে গরম পানিতে লেবুর শরবত শরীরে টক্সিন বা ক্ষতিকর পদার্থ বের করে দিতে সহায়ক।

পাঁচ: লেবুর রস আমাদের হজমে সহায়তা করে শরীরের জন্য দরকারি বাইল বা পিত্ত উত্পাদনে সহায়তা করে।

ছয়:লেবুতে রয়েছে শরীরের জন্য দরকারি সাইট্রিক এসিড, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও ম্যাগনেশিয়াম।

সাত: লেবু ব্যাকটেরিয়া বা জীবাণু বৃদ্ধিকে থামিয়ে দিয়ে ইনফেকশন রোধ করে।

আট: লেবু আমাদের বাত ব্যথা হ্রাস করে এবং ইউরিকের এসিডের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

নয়:লেবুর শরবত সাধারণ ঠাণ্ডা, সর্দি-কাশি লাঘবে সহায়ক এবং মস্তিষ্ক কোষকে উজ্জীবিত করে।

দশ:লেবু শরীরের লিভার এনজাইমকে শক্তি যোগায়। ফলে লিভার সুরক্ষিত থাকে।

এগার:লেবু ক্যালসিয়াম ও অক্সিজেনের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করে।

বার:লেবু আমাদের হার্ট বার্ন বা বুকে ব্যথা লাঘবে সহায়তা করে।

তের:স্কিন বা ত্বকের জন্য লেবুর রস অত্যন্ত উপকারী। এটা ত্বকের ভাঁজ বা রিংকেল পড়া থেকে রক্ষা করে।

চৌদ্দ: লেবুর রসের শরবত চোখের জন্য ভালো এবং এটা ডাইজেস্টিভ জুস তৈরিতেও সহায়ক।

পনের:ওয়ার্ক আউট বা ব্যায়াম করার পর এক গ্লাস লেবুর শরবত শরীর সতেজ করতে সহায়ক।

ষোল:লেবুর রসের শরবত আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

আরো খবর »